ঢাকা: ওপারে গঙ্গাপারের বাংলাতেও দোল৷ এপারের পদ্মাপারের বাংলাতেও দোল৷ বাসন্তী শাড়ি আর বাসন্তী পাঞ্জাবীতে সবাই মেতেছেন রঙের উৎসবে৷ রবীন্দ্রসংগীতের সুরে শুরু হয়েছে আবির খেলা৷ বেলা যতই গড়িয়েছে শহর থেকে গ্রাম ততই মেতে উঠেছে রঙের খেলায়৷ সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যেন বাংলাদেশকে পেছনের দিকে না নিয়ে যেতে পারে, সেই প্রার্থনাই করা হয়েছে সর্বত্র৷

আরও পড়ুন: হোলি হ্যায়…রঙিন হয়ে গেল পাকিস্তান

চিরাচরিত প্রথায় দোলযাত্রা পালিত হচ্ছে বাংলাদেশে৷ উৎসব উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছে সরকার৷ মূলক সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের উৎসব হলেও দোলে মেতেছেন আপামর বাংলাদেশি৷ ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহি, খুলনা সহ দেশের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়েছে আবির৷ এক হাতে থালা। সেই থালায় রাখা নানা রং। আরেক হাতে মোবাইল ফোন। থালা থেকে রঙ উঠিয়ে ইচ্ছেমতো মাখিয়ে নিচ্ছেন মুখমণ্ডলে। আবার একে অপরকে সেই রঙ মাখিয়ে দিচ্ছেন। সবাই বাহারি রঙে রাঙিয়ে নিচ্ছেন নিজেকে।

আরও পড়ুন: আবিরের বদলে পাপড়ি, ফুলদোলে রঙিন হয়ে উঠল দৃষ্টিহীন শিশুরা

পৌরাণিক মত অনুযায়ী, এদিন শ্রীকৃষ্ণ বৃন্দাবনে রাধিকা ও তার সখীগণের সঙ্গে আবির খেলেছিলেন। সেই ঘটনা থেকেই দোল উৎসব শুরু। এই উপলক্ষে আজ রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন মন্দিরে পূজা, হোমযজ্ঞ, প্রসাদ বিতরণসহ বিভিন্ন ধর্মীয় কর্মসূচি পালন করা হবে। ঢাকা মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে দোল উৎসব ও কীর্তন শুরু হয়েছে৷

হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব দোল পূর্ণিমা বা হোলি উৎসব বৃহস্পতিবার। ‘দোলযাত্রা’ বা ‘দোল পূর্ণিমা’ হিসাবে পরিচিত এই উৎসবে মেতে উঠেছেন সবাই৷ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জয়ন্ত সেন দীপু ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তাপস কুমার পাল এবং মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি ডি. এন. চ্যাটার্জী ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ্যামল কুমার রায় বুধবার যুক্ত বিবৃতিতে দোল পূর্ণিমা উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন: কৃষ্ণের দোল নয় এ দোল কালীর

সকাল থেকেই ঢাকেশ্বরী প্রাঙ্গণে রঙের উৎসব শুরু হয়। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উৎসব হলেও উপস্থিত সবাই বলছেন, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চিত্র দেখা যায় হোলি উৎসবকে ঘিরে। বিভিন্ন ধর্মের অনুসারীরাই উপস্থিত রয়েছেন সেখানে। ভারতে দোলযাত্রা বা দোল পূর্ণিমার ছুটি থাকায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বেনাপোল-পেট্রাপোল স্থলবন্দর দিয়ে দুই দেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে। ওপারে সরকারি ছুটি থাকায় আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকলেও বেনাপোল বন্দরে পণ্য খালাস প্রক্রিয়াসহ পণ্য ওঠানামা স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানান বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের পরিচালক (ট্রাফিক) আমিনুল ইসলাম।

 

রঙের উৎসব ঘিরে সনাতনি রীতি আর চলমান আনন্দ একসঙ্গে পায়ে পা মিলিয়ে এগিয়ে চলে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তাই শহর থেকে গ্রাম, সর্বত্র রঙিন মেজাজ। রঙ খেলায় মাতোয়ারা কচিকাঁচার দল। বেলা যত গড়িয়েছে রঙের খেলায় অংশ নিয়েছেন বড়রা। দোল উপলক্ষে বিভিন্ন মন্দিরে বিশেষ পুজোর আয়োজন করা হয়। সকাল থেকেই সেখানে ভক্তদের ঢল। এদিকে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে সকালে কচিকাঁচাদের নিয়ে বার হয় প্রভাতফেরি।

 

আরও পড়ুন: বালুরঘাট জমজমাট রঙের উৎসবে