স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: বিহারের বেতিয়ারের নিষিদ্ধ পল্লী থেকে হলদিবাড়ি থানার পুলিশ উদ্ধার করল কোচবিহার থেকে নিখোঁজ এক নাবালিকাকে৷ বিহার পুলিশের সহযোগিতায় মঙ্গলবার তাঁকে হলদিবাড়ি নিয়ে আসা হয়৷ মেয়েটির অভিযোগের ভিত্তিতে জলপাইগুড়ি থেকে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত ওই দুই যুবক মেয়েটিকে ফুসলিয়ে বিহারের এক ব্যাক্তির কাছে আশি হাজার টাকায় বিক্রি করে দিয়েছিল৷ গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে হলদিবাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যায় ওই কিশোরী৷ ওই কিশোরীর সঙ্গে মোবাইলের মাধ্যমে পরিচয় হয়েছিল জলপাইগুড়ির বাসিন্দা সুনীল ওরফে সুভাষের৷ ধীরে ধীরে সম্পর্ক ঘনিষ্টতা পায়৷ এরপর হলদিবাড়ি থেকে ওই যুবক মেয়েটিকে শিলিগুড়ি নিয়ে যায়৷ সেখানে বেশ কয়েকদিন মেয়েটিকে ধর্ষণ করে সুনীল ও তাঁর অন্য এক বন্ধু ছোটন৷

তারপর তাকে নিয়ে বিহারের ট্রেনে চাপে তারা৷ সেখানে ছিল বিহারের বাসিন্দা রামবাবু৷ মেয়েটিকে ঠান্ডা পানীয়র মধ্যে মাদক মিশিয়ে অচৈতন্য করে পালিয়ে যায় ওই যুবক৷ মেয়েটির জ্ঞান ফিরে এলে সে জানতে পারে ৮০ হাজার টাকার বিনিময়ে রামবাবুর কাছে তাকে বিক্রি করে দিয়েছে ওই দুই যুবক৷ এরপর থেকেই মেয়েটির স্থান হয় বিহারের নিষিদ্ধ পল্লিতে৷ পুলিশ দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে চাইছে তারা আরও কাউকেই এইভাবে পাচার করেছে কিনা৷