শ্রীনগর: ইদের দিন বাড়ি ফেরার সময় জঙ্গিদের হাতে নৃশংসভাবে খুন হন জওয়ান ঔরঙ্গজেব৷ ১৪ জুন ২০১৮ সালের ঘটনা৷ তার প্রায় একবছর পর ঔরঙ্গজেবের খুনিকে খতম করল ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ানরা৷ শনিবার সকালে পুলওয়ামা ও বারামুল্লায় এনকাউন্টারে নিকেশ চার জঙ্গির একজন ছিল ঔরঙ্গজেবের খুনি৷ তাকে খুন করে জওয়ান খুনের মধুর বদলা নিল নিরাপত্তা বাহিনী৷

শনিবার ভোররাত থেকে কাশ্মীরের পুলওয়ামা ও বারামুল্লায় জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে সেনার৷ পুলওয়ামার অবন্তিপোরায় সিআরপিএফ এবং স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ যৌথ অভিযান চালায়৷ সেই অভিযানে চার জঙ্গি মারা যায়৷ নিহতদের মধ্যে তিনজন কাশ্মীরের বাসিন্দা এবং হিজবুল মুজাহিদিনের সদস্য৷

পরে সেনার তরফে মৃতদের পরিচয় সামনে আনা হয়৷ তারা হল শৌওকত আহমেদ দার, ইরফান আহমেদ এবং মুজফফর আহমেদ৷ এদের মধ্যে শৌওকত পঞ্জগম, মুজফফর পুলওয়ামা ও ইরফান বারামুল্লার সোপোরের বাসিন্দা৷ সেনা সূত্রে খবর, শৌওকত ঔরঙ্গজেব খুনের অন্যতম সহযোগী ছিল৷

পুলওয়ামায় এনকাউন্টার চলছে৷ তখনই খবর আসে বারামুল্লার একটি গ্রামে সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষ বেধেছে৷ এলাকাটি ঘিরে জঙ্গিদের কোণঠাসা করে জওয়ানরা৷ সমস্ত পালানোর পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়৷ শুরু হয় দু’পক্ষের প্রবল গুলির লড়াই৷ এক জঙ্গি এই লড়াইয়ে খতম হয়৷ তবে তার পরিচয় এখনও জানা যায়নি৷ দুটি এনকাউন্টারের জায়গা থেকে বিপুল পরিমাণে অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে৷