শ্রীনগর : এক ঢিলে দুই পাখি। একদিকে সকাল থেকে গুলির লড়াইয়ে সাফল্য পেয়েছে ভারতীয় সেনা। নিকেশ করা গিয়েছে তিন জঙ্গিকে। যার মধ্যে একজন পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন হিজবুল মুজাহিদিনের অন্যতম কমান্ডার। অন্যদিকে, এই কমান্ডারকে খতম করার সঙ্গেই কাশ্মীরের ডোডা জেলাকে সম্পূর্ণ জঙ্গি মুক্ত বলে ঘোষণা করেছে জম্মু কাশ্মীর পুলিশ।

সোমবার সকাল থেকেই এনকাউন্টার শুরু হয় জম্মু কাশ্মীরে। ভারতীয় বাহিনীর হাতে খতম হয় তিন জঙ্গি। জম্মু কাশ্মীরের অনন্তনাগে খুলচোহার এলাকায় এই এনকাউন্টার ঘটে। নিহত ৩ জঙ্গির পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে কাশ্মীর জোন পুলিশ। একটি টুইট বার্তায় একথা জানানো হয়েছে।

এরই মধ্যে খবর মেলে নিহত জঙ্গিদের মধ্যে একজন হিজবুলের টপ কমান্ডার। মাসুদ আহমেদ ভাট নামে ওই জঙ্গিকে নিকেশ করার সাথেই ডোডা জেলা সম্পূর্ণ জঙ্গিমুক্ত বলে ঘোষণা করেছে পুলিশ। ভারতীয় সেনা, জম্মু কাশ্মীর পুলিশ ও সিআরপিএফ যৌথভাবে এই অপারেশন চালায়। উদ্ধার করা হয়েছে একটি এ কে ৪৭ রাইফেল, দুটো পিস্তল।

জম্মু কাশ্মীর পুলিশ প্রধান দিলবাগ সিং জানান, আজকের অপারেশনের পরে তিন জঙ্গি খতম হয়েছে অনন্তনাগে। দুই জঙ্গি লস্কর ই তইবার সদস্য ও একজন হিজবুলের টপ কমান্ডার মাসুদকে নিকেশ করেছে সেনা। ডোডা জেলায় মাসুদই সেষ জঙ্গি ছিল। জম্মু জোনের ডোডা জঙ্গিমুক্ত।

ধর্ষণ কান্ডে মাসুদের নাম জড়ানোর পর থেকেই পলাতক সে। পরে হিজবুলে নাম লেখায় এই মাসুদ। ডোডা জেলা জুড়ে সন্ত্রাসমূলক কাজ করত সে বলে জানিয়েছেন দিলবাগ সিং। দক্ষিণ কাশ্মীরে এখনও ২৯জন পাক জঙ্গি সক্রিয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে, দিন কয়েক আগেই পুলওয়ামা জেলার ত্রল অঞ্চল পুরোপুরিভাবে হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি মুক্ত বলে জানায় পুলিশ। ১৯৮৯ সাল থেকে সন্ত্রাস কবলিত হওয়ার পর থেকে এই প্রথমবার এই ঘটনা ঘটে।

পুলওয়ামা জেলার দক্ষিণ কাশ্মীরের ত্রলের উলার অঞ্চলে সেনাবাহিনীর সঙ্গে সারারাত গুলির লড়াই চলার পরে শুক্রবার তিন জঙ্গির মৃত্যুর হয়, ঠিক সেই ঘটনার পরেই এমন তথ্য দেয় জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ।

কাশ্মীরের ইন্সপেক্টর জেনারেল অফ পুলিশ বিজয় কুমার ট্যুইট করে জানান, “এদিনের সফল অপারেশনের পরে ত্রল অঞ্চলে হিজবুল মুজাহিদিনের কোনও জঙ্গি সেখানে নেই। ১৯৮৯ থেকে এই প্রথম এমন ঘটনা ঘটেছে”।

হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গিগোষ্ঠীর উচ্চস্তরের কম্যান্ডার যেমন বুরহান ওয়ানি এবং জাকির মুসাও ত্রলেরই অংশ ছিল। কিছুদিন আগে একসঙ্গে নয়টি বড় অপারেশন চালিয়েছে ভারতীয় সেনা। সবক’টি অপারেশনে ২২ জন জঙ্গিকে নিকেশ করা সম্ভব হয়।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।