নয়াদিল্লি: সম্প্রতি একটি অ্যাওয়ার্ড শো-তে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে করা তাঁর বিতর্কিত মন্তব্যে শোরগোল পড়ে যায় নেটদুনিয়ায়। কিন্তু আদতে ধোনিকে নিয়ে তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে। জানালেন চায়নাম্যান কুলদীপ যাদব।

সোমবার একটি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বাইশ গজে উইকেটের পিছনে ধোনির ভূমিকা নিয়ে বলতে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন কুলদীপ। তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট মাঠে চাপের মুহূর্তে ধোনির মতো সিদ্ধান্ত গ্রহণ সত্যিই খুব কম ক্রিকেটারই করতে পারেন। তবে কখনও কখনও তাঁরও ভুল হয়। কিন্তু সেব্যাপারে তাঁকে কিছু বলা যায় না।’ চায়নাম্যান বোলারের আলটপকা এহেন মন্তব্য স্বাভাবিকভাবেই গ্রহণযোগ্য হয়নি নেটিজেনদের কাছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর মন্তব্যের জন্য তিরস্কৃতও হতে হয় কুলদীপকে।

আরও পড়ুন: ধোনির অভিনব শাস্তির ভয়েই সবাই অনুশীলনে আসত যথা সময়ে

পরে অবশ্য কুলদীপ এবং জাতীয় দলে স্পিন বিভাগে তাঁর সতীর্থ যুবেন্দ্র চাহাল ধোনিকে প্রশংসায় ভরিয়ে দেন। ধোনির দুরন্ত ম্যাচ রিডিং ক্ষমতা সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটের ক্রিকেটে তাঁদের বোলিং ক্ষুরধার করতে সাহায্য করেছে বলে জানান ভারতীয় ক্রিকেটের কুল-চা জুটি।

আরও পড়ুন: নিউজিল্যান্ডের পরবর্তী ব্যাটিং কোচ ফুলটন

কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর মন্তব্য নিয়ে কাটাছেঁড়ায় বিরক্ত কুলদীপ। পরে এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, ‘শুধু আমার কাছেই নয়, দলের প্রত্যেক ক্রিকেটারের কাছেই ধোনির মতামত সমান গুরুত্বপূর্ণ। উইকেটের পিছনে তাঁর উপস্থিতি দলের কাজ অনেক সহজ করে দেয়। এই ঘটনা অস্বীকার করার জায়গা নেই।’

আরও পড়ুন: ডাবলিনে দাপুটে জয় টাইগারদের

তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করায় মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর হতাশা উগড়ে দেন এই চায়নাম্যান বোলার। ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে এই তরুণ তুর্কি লেখেন, ‘কোনও কারণ ছাড়াই সংবাদমাধ্যমে সস্তার গুজব ছড়িয়ে পড়ছে। যা বিতর্কে ইন্ধন দিচ্ছে। কিছু মানুষ এই বিতর্ক আরও উস্কানোর কাজ করছেন। কিন্তু বিষয়টির উপর আলোকপাত করে আমি বলতে পারি খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি কারোও সম্বন্ধে কোনও অনুচিত মন্তব্য করিনি।’

সদ্য-সমাপ্ত আইপিএল কুলদীপের কাছে খুব একটা সুখের হয়নি। কেকেআরের হয়ে ৯ ম্যাচে মাত্র ৪টি উইকেট এসেছে তাঁর ঝুলিতে। তবে স্পিনার হিসেবে দলের প্রথম পছন্দ হয়েই বিশ্বকাপের বিমান ধরবেন তিনি।