লন্ডন: নয়া পাঁচ পাউন্ডের নোট নিষিদ্ধ ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত নিল ব্রিটেনের বেশকিছু হিন্দু মন্দির৷জানা গিয়েছে, এই নয়া নোটে রয়েছে অতিরিক্ত অ্যানিমেল ফ্যাট৷যা শূকর ও খাসির শরীর থেকে উৎপন্ন হয়৷ফলে মন্দিরগুলির শাকাহারী ও ধর্মপ্রাণ মানুষদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিলে তারা মন্দির গুলিতে  পাঁচ পাউন্ডের নোট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেন৷

ব্রিটেনের অন্যতম বড় কৃষ্ণ মন্দির দক্ষিণ ইংল্যান্ডের ভক্তিবেদান্ত  তাদের ফেসবুক পেজে ঘোষণা করে দিয়েছে এই নোট নিষিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি৷ দি ন্যাশানল কাউন্সিল অফ হিন্দু টেম্পেলস জানিয়েছে, যেহেতু এর দ্বারা ধর্মীয় ভাবাবেগে আগাত লাগে তাই তারা এই নয়া পাউন্ড গ্রহণ করবে না৷ব্রিটেনের হিন্দু ফোরামের পক্ষ থেকে নয়া পাঁচ পাউন্ডের নোট বাজার থেকে তুলে নেওয়ার দাবি জানান হয়েছে৷ এক্ষেত্রে তারা ব্রিটেনে বসবাসকারী হিন্দুদের অনুরোধ করেছেন একটি পিটিশনে স্বাক্ষর করে তা প্রশাসনের কাছে জমা করার জন্য৷

পিটিশনের শিরনামে থাকছে ‘চর্বি মুক্ত হোক ব্যাংক নোট’৷ এখনও পর্যন্ত এক লাখ ত্রিশ হাজার নাগরিক স্বাক্ষর করেছেন এই পিটিশনে৷ জানা গিয়েছে, স্বাক্ষরের সংখ্যা এক লাখ পঞ্চাশ হাজার ছাড়ালে তা ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের কাছে জমা করা হবে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।