ইসলামাবাদ: ফের মন্দিরে ভাঙচুর নিয়ে উত্তপ্ত হল পরিস্থিতি৷ পাকিস্তানের সিন্ধে একদল যুবক মন্দিরে ভাঙচুর চালায় এবং আগুন লাগিয়ে দেয় বলে সূত্রের খবর৷ এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানিয়েছেন দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তি নিতে হবে স্থানীয় প্রশাসনকে৷

মঙ্গলবার রাতে এই বিষয়ে একটি ট্যুইটও করেন তিনি৷ তিনি বলেন, এই ধরণের কাজ কোরানের শিক্ষার মধ্যে পড়ে না৷

ইতিমধ্যেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে৷ সূত্রের খবর, ওই মন্দিরে কোনও নিরাপত্তা রক্ষী নেই৷ তবে এই ঘটনার পর এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শনে নেমেছে স্থানীয়রা৷ ওই মন্দিরের নিরাপত্তার জন্য পাকিস্তান হিন্দু কাউন্সিলের উপদেষ্টা রাজেশ কুমার হরদসানি একটি স্পেশাল টাস্ক ফোর্স গঠনের দাবি জানান৷ পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে বলে জানা গিয়েছে, তবে এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি৷

প্রসঙ্গত, ২২০ মিলিয়ন মুসলিম অধ্যুষিত পাকিস্তানে ২ শতাংশ হিন্দু, যারা বেশিরভাগই সিন্ধ প্রদেশে বাস করেন৷ আর এই সিন্দে হিন্দুরা প্রায়ই হয়রানির শিকার হন বলেও অভিযোগ শোনা যায়৷ সাম্প্রতিক এই মন্দির ভাঙচুরকে কেন্দ্র করে সেই ক্ষোভ ফের বাড়ল৷