গুয়াহাটি: ফের ঘেরাও পরিস্থিতি । আবারও উত্তপ্ত হয়েছে অসম। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় একাধিক সংগঠনের প্রতিবাদের মুখে পড়লেন মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। তাঁকে তেজপুর বিমানবন্দরেই ঘেরাও করা হয়েছে।

অসমের অর্থমন্ত্রী তথা উত্তর পূর্ব ভারতের বিজেপির প্রধান নেতা হিমন্ত বিশ্বশর্মা। তিনি নেডা বা নর্থ ইস্ট ডেমোক্রেটিক এলায়েন্স আহ্বায়ক। বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের ঘনিষ্ঠ।

জানা গিয়েছে, তেজপুরের পরিস্থিতি প্রবল উত্তপ্ত। সেখানে আসু ও বিভিন্ন নাগরিক সংগঠন নতুন করে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা শুরু করেছে।

এর মাঝে গুয়াহাটিতে আইনের পক্ষে তীব্র মতামত রেখে মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা তেজপুর যান। বিমান বন্দরের সামনেই চলছিল প্রতিবাদ সমাবেশ। বিক্ষোভের রোষ গিয়ে পড়ে মন্ত্রীর উপর। তাঁকে বিমান বন্দরের মধ্যেই আটকে রাখা হয়।

সিএএ লাগু করা নিয়ে অসম সহ উত্তর পূর্বের রাজ্যগুলিতে লাগাতার বিক্ষোভ চলছেই। প্রবল বিক্ষোভে রক্তাক্ত হয়েছে অসম। সেই বিক্ষোভের সময় মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল সহ বেশকয়েকজন বিজেপি নেতা বারে বারে ঘেরাওয়ের মুখে পড়েন।

বিভিন্ন সংগঠনের দাবি, এই আইনে মুসলিম প্রধান দেশগুলির অ-মুসলিমদের ভারতের নাগরিক করা হলে উত্তর পূর্বাঞ্চলের স্থানীয় জনগোষ্ঠী আরও চাপের মুখে পড়বে।

যুক্তি হিসেবে বলা হচ্ছে, অসম ও অন্যান্য রাজ্য লাগোয়া বাংলাদেশের হিন্দুরা ভারতে আসবেন বহুল পরিমানে। তাদের চাপ পড়বে অহমিয়া সহ বিভিন্ন স্থানীয় জনগোষ্ঠীর উপর।

ফলে আইনটি জারি হওয়ার পর থেকেই তীব্র সরকার বিরোধী আন্দোলনে রক্তাক্ত অসম। সেই পরিস্থিতি কিছুটা থেমেছিল। এদিকে আইনটির প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লি, উত্তর প্রদেশ সহ বিভিন্ন রাজ্যেও রক্তাক্ত আন্দোলন হয়েছে। মারা দিয়েছেন অনেকে।