File Pic

নয়াদিল্লি: হঠাৎ দিল্লি এয়ারপোর্ট ত্রস্ত হয়ে পড়লেন সবাই৷ সকলেই ভাবলেন বিমান হাইজ্যাক হয়েছে৷ ছোটাছুটি পড়ে গেল চারিদিকে৷ যাত্রীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন ইতিমধ্যেই৷ কারণ পাইলট বিমান হাইজ্যাকের সাইরেন বাজিয়েছেন৷

সাইরেন বেজে উঠলে আতঙ্ক তো ছড়াবেই৷ দিল্লি-কান্দাহার FG312 বিমানটি আকাশে ওড়ার কথা ছিল দুপুর ৩:৩০ মিনিটে৷ কিন্তু সেই বিমান আকাশে উড়ল শনিবার সন্ধ্যায়৷ হঠাৎ এমন ঘটনায় হতচকিত হয়ে পড়েন সকলেই৷

কান্দাহারের বিমানে তখন যাত্রীরা বসে রয়েছেন৷ হঠাৎ বেজে ওঠে সাইরেন৷ পাইলট হাইজ্যাক বাটনটিতে চাপ দিয়ে ফেলেছেন৷ তার ফলেই নিরাপত্তারক্ষীরা ছোটাছুটি শুরু করে দেন দিল্লি বিমানবন্দরে৷ বিমানটির ঠিক তখনই টেক অফ করার কথা৷ সূত্র মারফত এই খবর মিলেছে৷

দি এরিয়ানা আফগান এয়ারলাইনসের বিমানটি এরপর দু’ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ে৷ কারণ হাইজ্যাক সাইরেন বেজে ওঠার পরই তৎপর নিরাপত্তারক্ষীরা বিমানটি সরেজমিনে তদন্ত করেন৷ প্রতিটি কোনা চেক করা হয়৷ ‘সাটিসফ্যাকটরি’ চেকিং এর পরই বিমানকে আকাশে উড়তে দেওয়া হয়৷

যদিও এখনও পর্যন্ত সরকারি ভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷ সূত্র মারফত জানা গিয়েছে হাইজ্যাক বটন প্রেস করার পরই সন্ত্রাসবিরোধী জাতীয় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী(এনএসজি) সহ সংশ্লিষ্ট সব সংস্থাই পদক্ষেপ করতে বাধ্য হয়৷

এনএসজি কমান্ডোরা এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থার অফিসারেরা সেই বিমানের পরিস্থিতি দেখতে বাধ্য থাকেন৷ প্রায় দু’ঘণ্টার অপারেশনের পর বিমানটিকে ছাড়া হয়৷ সেসময় যাত্রীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন৷ নিরাপত্তারক্ষীদের পক্ষ থেকে তাঁদের আতঙ্কিত হতে বারণ করা হয়৷ এরপর সব স্বাভাবিক রয়েছে এটা নিশ্চিত করার পরই বিমানকে আকাশে ওড়ার অনুমতি দেওয়া হয় সেই সেই সূত্র জানিয়েছে৷