স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নদিয়ায় প্রবেশের ছাড়পত্র পেলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়৷ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি ও মনোজিৎ মণ্ডলের ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশে বাধা কাটল৷ বুধবার নদিয়ার নাকাশিপাড়ায় নির্বাচনী সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী৷ সেই সভায় যোগদানের ক্ষেত্রে আর কোনও বাধা রইল না মুকুল রায়ের৷ তবে বাকি তিন দিন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভায় যোগ দেবেন ওই বিজেপি নেতা৷

লোকসভায় বিজেপির পাখির চোখ বাংলা৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় জনসভা করছেন। বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে ২৪ এপ্রিল নদিয়ার নাকাশিপাড়ায় নির্বাচনী সভা করবেন মোদী। সেখানে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে বিজেপি নেতা মুকুল রায় ২৪, ২৫, ২৬ ও ২৭ এপ্রিল ওই জেলার দলীয় জনসভায় অংশগ্রহণ করতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানান৷ তার প্রেক্ষিতেই এই নির্দেশ হাইকোর্টের৷

আরও পড়ুন: পুলিশ-তৃণমূল যোগসাজসেই টিয়ারুলের মৃত্যু: বিস্ফোরক আবু হেনা

মঙ্গলবার মামলার শুনানিতে মুকুল রায়ের পক্ষের আইনজীবী ফিরোজ এডুলজি আদালতে জানান, ‘‘এই বেঞ্চের শর্তসাপেক্ষ নির্দেশ এতদিন মুকুল রায় যথাযথভাবে পালন করেছেন। তাই আগামী চার দিন তাঁকে নদিয়ায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হোক।’’

আরও পড়ুন: রতুয়ায় একজনের ভোট দিচ্ছেন অন্যজন, কলকাতা 24X7-এ ধরা পড়ল ছবি

মুকুল রায়ের আইনজীবীর বক্তব্যের বিরোধিতা করে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন, ‘‘মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ রয়েছে তার তদন্ত ক্রিটিক্যাল স্টেজে রয়েছে। তিনি ওই জেলায় গেলে, জনমানসে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। একই সঙ্গে তদন্ত প্রক্রিয়া প্রভাবিত হতে পারে। তাই আদালতকে অনুমতি না দেওয়ার আবেদন জানান রাজ্যের এজি কিশোর দত্ত।’’

আরও পড়ুন: ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ উঠল খোদ কেন্দ্রীয়বাহিনীর বিরুদ্ধেই

উভয়পক্ষের বক্তব্য শুনে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি ও মনোজিৎ মণ্ডলের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দেন, ২৪ তারিখ প্রধানমন্ত্রীর নদিয়ার জনসভায় যোগদান করতে পারলেও বাকি দিনগুলোতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দিতে পারবেন। এই ভিডিও কনফারেন্সের জন্য সমস্ত ব্যবস্থা রাজ্যকে করার নির্দেশ দেওয়া হয়৷

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস খুনের ঘটনায় বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন সত্যজিৎবাবুর স্ত্রী। তার পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন জানান মুকুল রায়। হাইকোর্ট নির্দেশ দেয়, মুকুল রায়কে তখনই গ্রেফতার করা যাবে না৷ কিন্তু, নদিয়ায় জেলায় প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল হাইকোর্ট৷