বহরমপুর: গানটা ছিল ফুলের ছোঁয়া যদি লাগে, তোমার জানি কতো…জনপ্রিয় গানটি একটু পাল্টে যায় সাম্পতিক করোনাতঙ্ক পরিবেশে। করোনা ছোঁয়া কেন লাগে… এ যে মরণ ছোঁয়া। অদৃশ্য ঘাতক দুনিয়া জুড়ে মৃত্যু মিছিল ডেকে এনেছে। হাজারে হাজারে মানুষের মৃত। লক্ষ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত। ভারতেও ছড়িয়েছে এই রোগ। এই অবস্থায় করোনাভাইরাস রোগীর ছোঁয়া থেকে বাঁচতে তিন মিটার দূরত্ব রাখার নিদান দিয়েছেন চিকিৎসকরা। তবে কে যে রোগী আর কে নয় তাই বোঝা যায় না।

ফলে লকডাউন করে সামাজিক দূরত্ব রাখার কৌশলই আপাতত করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচার পথ। এসব দেখে মুর্শিদাবাদের বহরমপুর নিবাসী জয়ন্ত সিনহা অভিনব উপায় বের করেছেন। গোটা গায়ে এমন করে লাঠি বেঁধেছেন যাতে রাস্তায় তাঁর তিন মিটারের মধ্যে কেউ আসতে না পারে। নিঃসন্দেহে অভিনব চেষ্টা।

স্থানীয় একটি সংবাদ মাধ্যমে জয়ন্তবাবুর কথা প্রচার করা হয়। ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে জয়ন্ত সিনহা সাইকেল চালাচ্ছেন। তাঁর গায়ে কোনাকুনি করে লাঠি বাঁধা। কেউ তাঁর তিন মিটারের মধ্যে ঢুকতে পারছেন না। (এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি কলকাতা২৪x৭) এইভাবে নিজেকে নিরাপদ করেই রাস্তায় বেরিয়েছেন জয়ন্তবাবু। তাঁর নাক-মুখ অবশ্য ঢেকে রেখেছেন।

তিনি জানান, নিজেকে যেমন সতর্ক ও নিরাপদ দূরত্বে রেখেছি, তেমনই এটা সবার কাছে একটি বার্তা। করোনাভাইরাস পশ্চিমবঙ্গে ছড়াচ্ছে। মালদা-মুর্শিদাবাদ দুই জেলা করোনা সংক্রমণের বড়সড় ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। বহরমপুরের বাসিন্দা জয়ন্ত সিনহার নিরাপদ দূরত্ব রাখার চেষ্টা এই সময়ের প্রেক্ষিতে বিশেষ আলোচিত।