ওয়াশিংটন: একে তো করোনা নিয়ে নাজেহাল সারা বিশ্ব। অর্থনীতি থেকে উৎসব সব কিছুতেই কামড় বসিয়েছে করোনা। এরই মধ্যে সকলকে সতর্ক করেছেন মার্কিন বিজ্ঞানী মাইকেল গ্রেগর। তিনি বলেছেন মুরগির খামার থেকেও এমন ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে যা কিনা করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর মহামারির সৃষ্টি করতে পারে।

বিজ্ঞানী মাইকেল গ্রেগর তাঁর নতুন বই ‘হাউ টু সারভাইভ এ প্যান্ডামিক’ এ বলেছেন, বেশি পরিমাণে মুরগী খামার তৈরি হওয়ার ফলে সংক্রমণ বেড়ে গিয়েছে। তিনি মানুষকে শুধুমাত্র নিরামিশ খাবার খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। পাশপাশি তাঁর দাবি, এই ভাইরাস এতটা বিপজ্জনক যে অর্ধেক পৃথিবী বিপদের মুখে পড়তে পারে।

নজরে রাখার বিষয় হল মাইকেল গ্রেগরের ‘ভবিষ্যদ্বাণী’ সম্পর্কিত কোনও প্রমাণ প্রকাশিত হয়নি, বা অন্য কোনও বিজ্ঞানীও তার দাবির সত্যতা নিশ্চিত করতে পারেননি। কিন্তু মাইকেল গ্রেগের দাবি, অন্য জীবের সঙ্গে মানুষের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের জেরেই মানুষ বিপদে পড়তে পারে।

এখন অবধি পাওয়া তথ্য স্পষ্ট বলেছে, বাদুড় বা অন্য কোনও প্রাণীর দেহ থেকে করোনা মানব দেহে ছড়িয়ে পড়েছে। এই করোনা ভাইরাস ছড়ানোর জন্য বিশ্বের অধিকাংশ দেশ চিনের উহানের প্রাণী বাজারকেই দায়ী করছে।

মাইকেল গ্রেগর বলছেন, মাংস খাওয়ার কারণে মানুষ মহামারীতে আক্রান্ত হয়। তবে বিশ্বের অন্যান্য বিজ্ঞানীরা মুরগি খামার​থেকে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ব্যাপারে নিশ্চিত কিছু বলেননি। তবে করোনার প্রাদুর্ভাবের পরে অনেক দেশের বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন বন্য প্রাণীর বাজার বন্ধ করার দাবি জানিয়েছেন।

অনেক দেশ চিনের কাছে পশুর বাজার বন্ধ করার দাবিও জানিয়েছে। জানা গিয়েছে চিনও বন্যপশু হত্যা করে তা বাজারে বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব