নয়াদিল্লি: গত কয়েকদিন ধরেই প্রবল বর্ষণে ভাসছে উত্তর ও পশ্চিম ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্য। এরই মধ্যে আগামী দুদিন আরও প্রবল বৃষ্টি হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। কর্ণাটক ও কেরালা রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারন করছে, আপাতত বৃষ্টি কমার কোনও সম্ভাবনা দেখছে না আবহাওয়া অফিস।

উত্তর ভারতের দিল্লী , রাজস্থান, হরিয়ানা, চণ্ডীগড় , মধ্যপ্রদেশ সহ পাঞ্জাব এবং বাকি রাজ্যগুলিতে আগামী দুদিন প্রবল বৃষ্টি হওয়ার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। উত্তরের এই রাজ্যগুলিতে বৃষ্টি চলবে আগামী ২০ আগস্ট পর্যন্ত।

সর্বভারতীয় আবহাওয়া দফতরের আইএমডি অফিসার শুক্রবার জানিয়েছেন , উত্তরপশ্চিমের মধ্যপ্রদেশ রাজ্য এবং দক্ষিনপশ্চিমের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের উপর আপাতত গভীর নিম্মচাপ হওয়ায় আগামী ৪৮ঘণ্টায় এই রাজ্য গুলিতে ভারী বৃষ্টি হবার সম্বভানা রয়েছে। এই নিম্মচাপের কারনে আগামী ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দিল্লী, রাজস্থান,উত্তরপ্রদেশ পাঞ্জাব এই রাজ্য গুলিতে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবার সম্ভাবনার কথাও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিসের তরফে ।

শুক্রবার ওশনিবার পশ্চিমবঙ্গ,সিকিম ,আসাম ও মেঘালয় এই রাজ্য গুলিতে ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। ইতিমধ্যে গতকাল থেকে সারাদিন ধরে ভারী বৃষ্টি থেকে হালকা বৃষ্টি এবং সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ্রপাতের সঙ্গে বৃষ্টি হয়েছে মধ্যপ্রদেশ , গোয়া, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র,নাগাল্যান্ড, মিজোরাম, মনিপুর, আসাম, গুজরাত,সিকিম, পশ্চিমবঙ্গ , আন্দামান নিকবোরদ্বীপপুঞ্জ
পাঞ্জাব, উত্তরাখণ্ড, বিহার, ও অরুণাচল প্রদেশ প্রভিতি রাজ্য গুলিতে।

কেরল রাজ্যের বন্যা বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে ব্হস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত কেরলের বন্যায় ১০৪ জন মারা গিয়েছেন,বন্যায় সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে মাল্লাপুরম জেলা ওখানের প্রায় ৪৩ জন মানুষ মারা গিয়েছে এই বন্যার ফলে, এছাড়াও বাকি ১৪টি জেলায় ইতিমধ্যে বহু মানুষ ঘর ছাড়া হয়েছে এবং কোজিখদ জেলার ১২জন ও পাশের জেলা ওয়ানাদের কান্নুড় অঞ্চলে এখনও পর্যন্তও বন্যায় ৯ জন মারা গিয়েছে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী কেরলের এই বন্যায় ঘর ছাড়া হয়েছে প্রায় ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ৩৭৩ জন মানুষ এছাড়াও প্রায় ১০৫৭জন মানুষকে উদ্ধার করে পাঠানো হয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন

ত্রান শিবির গুলিতে। পাশাপাশি এই বন্যায় কর্ণাটকে প্রান হারিয়েছেন ৬১ জন মানুষ, অতিরিক্ত বর্ষণ এবং বন্যার ফলে এই রাজ্যের ২২টি জেলা বন্যার জলের তলায় চলে গিয়েছে বলে সরকারি সুত্রে জানানো হয়েছে। কর্ণাটকের বন্যায় সবথেকে ক্ষতিগ্রস্থ জেলা হল বেলাগাভি, যেখানে বন্যায় এখনও অবধি ১৫ জন মানুষ মারা গিয়েছে।