ফাইল ছবি

পানাজি: আগামী ২৪ ঘন্টায় প্রবল বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া দফতর। শুক্রবার সকাল থেকে গোয়া জুড়ে প্রবল বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। সেখানকার আবহাওয়া দফতর পূর্বাভাসে জানিয়েছে, আগামী কয়েক ঘন্টায় বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। ইতিমধ্যে সে রাজ্যে আগাম সতর্কতা হিসাবে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। পাশাপাশি সমুদ্র উত্তাল থাকতে পারে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। আর সেই কারণে সমুদ্রে না নামার জন্যে বলা হয়েছে। মৎস্যজীবীরাও যাতে এই সময় সমুদ্রে মাছ ধরতে না যায় সেজন্যে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

স্থানীয় আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে যে, একটি গভীর নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। আরব সাগরে উপরে মূলত এই নিম্নচাপটি তৈরি হয়েছে। আর যার জেরেই মহারাষ্ট্রের উপকূলবর্তী এলাকায় ব্যাপক বৃষ্টি হতে পারে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। বিশেষ করে গোয়াতে প্রবল বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে জানাচ্ছে স্থানীয় আবহাওয়া দফতর। যার জেরে গোয়ায় ইতিমধ্যে সৈকতের পার্শ্ববর্তী অস্থায়ী দোকানগুলোকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে প্রবল বৃষ্টিপাতে বিস্তীর্ণ এলাকা জলবন্দি হয়ে যেতে পারে। গোয়া প্রশাসন আগে থেকেই ত্রাণ মজুত করতে শুরু করেছে বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় আবহাওয়া দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্রের কনকন এলাকার সিন্ধুদুর্গ ও রত্নগিরিতে লাল সর্তকতা জারি করা হয়েছে। যে সব অঞ্চলে লাল সতর্কতা জারি হয়েছে, সেখানে ভারী থেকে অতি ভারীর বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। অন্যদিকে বাংলার ক্ষেত্রেও ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। দক্ষিণবঙ্গ এবং উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জেলায় বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে বলে আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে। বিশেষ করে উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলাতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।

পাওয়ারের শক্তিতে মহারাষ্ট্রে টিকে থাকলেন সোনিয়া-রাহুলসুস্পষ্ট নিম্নচাপ এখন উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ ও দক্ষিণ ওড়িশার ওপর অবস্থান করছে। যার ফলে দক্ষিণবঙ্গে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ অনেকটাই বেড়েছে। এর ফলে আগামীকাল থেকে দক্ষিণবঙ্গ এবং উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জেলায় বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। বৃষ্টি সতর্কতা রয়েছে বিশেষ করে দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলিতে। যার মধ্যে রয়েছে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ছাড়াও দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম । বাকি জেলাগুলোতে ভারী বৃষ্টি হবে। আগামীকাল উত্তরবঙ্গের মালদা ও দুই দিনাজপুরে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ২৬ তারিখ বৃষ্টির পরিমাণ কমে আসবে। ২৭ তারিখ অর্থাৎ কালীপুজোর দিন বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। আকাশ পরিষ্কার থাকবে। এমনটাই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।