স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বিকেল হতেই আকাশের মুখ ভার৷ ঘন কালো মেঘ ছড়িয়ে গেল এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত৷একটু ঝোড়ো ঠাণ্ডা হাওয়া…আর তারপরেই সেই স্বস্তির বৃষ্টি৷ মঙ্গলবারের বিকেল এমনই সুন্দর উপহার দিল শহর কলকাতাকে৷ শুধু কলকাতাই নয়, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, হুগলি, বাঁকুড়া, বীরভূম, নদিয়া, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরেও বৃষ্টি হয় এদিন৷

হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি, সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যায় জেলাগুলির ওপর দিয়ে৷ বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ কলকাতা ও হাওড়ায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাত হয়৷ আগামী দু-তিন ঘণ্টা এই বৃষ্টি চলবে বলে পূর্বাভাস আলিপুর আবহাওয়া দফতরের৷ তবে এর আগে হাওয়া অফিস জানিয়েছিল দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই৷

এদিকে হাওয়া অফিস জানায়, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি এবং নদিয়ায় তাপমাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। একইসঙ্গে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পূর্ব পশ্চিম বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর, বীরভূম, মালদা ও ঝাড়গ্রামে রয়েছে তাপ প্রবাহের সতর্কতা দেওয়া হয়৷

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানায়, আজও ওই সমস্ত জেলার তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে ২ থেকে ৩ ডিগ্রী বেশি থাকবে। দক্ষিণবঙ্গে কবে বর্ষা আসবে তা স্পষ্ট নয়। রবিবার বঙ্গোপসাগরের উত্তর উপকূল ঘেঁষে অসমের গোয়ালপারা, আলিপুরদুয়ার এবং গ্যাংটক হয়ে বর্ষা ঢুকছে বাংলায়। হাওয়া অফিস জানায় উত্তরবঙ্গ এবং সিকিমে ঢুকেছে মৌসুমী বায়ু। আজ উত্তরের জেলাগুলোতে ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা ছিল৷ মঙ্গলবার সমস্ত উত্তরবঙ্গেই বর্ষার মেঘ প্রবেশ করার সম্ভাবনা ছিল বলে জানিয়েছিল হাওয়া অফিস৷

মঙ্গলবারও শহরের সর্বোচ্চ আর্দ্রতার পরিমাণ ছিল ৯৫ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৬৭ শতাংশ। তাপমাত্রা সর্বোচ্চ ৩৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে যা দুই ডিগ্রি বেশি। অল্প বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়েছিল হাওয়া অফিস৷