নয়াদিল্লি : স্বস্তির খবর দিল আইএমডি বা ইন্ডিয়ান মেটারোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট। তাপপ্রবাহের থেকে মুক্তি পেতে চলেছে মধ্যভারত। আইএমডির এক শীর্ষ আধিকারিক নরেশ কুমার জানিয়েছেন পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে বৃষ্টি নামতে পারে মধ্য ভারতে।

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে উত্তর ও মধ্য ভারত। সেই তাপমাত্রা বেশ কিছুটা কমবে বৃষ্টি হলে। ২৯ ও ৩০ তারিখ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। পশ্চিম হিমালয় রিজিয়নে হতে পারে হালকা বৃষ্টি। নরেশ কুমার বলেন শুধু পশ্চিমী ঝঞ্ঝা নয়, বঙ্গোপসাগর থেকে জলীয় বাষ্প বৃষ্টিপাতে সাহায্য করবে। এর ফলে উত্তর পশ্চিম ও মধ্য ভারতে বৃষ্টি হবে।

এদিকে, শেষ ১০ বছরে মে মাসে চুরু উষ্ণতার পারদের মাত্রায় দ্বিতীয় জায়গা নিয়েছে। ২০১৬ সালের ১৯ মে শহরের তাপমাত্রা উঠেছিল ৫০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা এ যাবৎ সর্বোচ্চ। ২২ মে থেকে তীব্র তাপ প্রবাহের সাক্ষী থেকেছে চুরু। শহরের তাপমাত্রা ঘোরাফেরা করছে ৪৬.৬ থেকে ৪৭.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। রাজস্থানের জয়সলমীর ও কোটা শহরের তাপমাত্রাও ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরেই থাকছে।

প্রসঙ্গত, মৌসম ভবন চলতি বছরে তাপপ্রবাহের পূর্বাভাস দিয়েছে। বিগত কয়েকদিন কীভাবে বেড়েছে তাপমাত্রার দিকে নজর রাখলেই তা স্পষ্ট হয়ে যাবে।

পৃথিবীর ১৫ উষ্ণতম শহরের মধ্যে দশটি ভারতে আর বাকি পাঁচটি পাকিস্তানে, এমনটাই জানিয়েছে আবহাওয়া মনিটরিং ওয়েবসাইট এল ডোরাডো।

রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরের ২০ কিলোমিটার উত্তরে চুরু, দেশের সবচেয়ে বেশি উষ্ণতা অর্থাৎ ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে মঙ্গলবার। থর মরুভূমির প্রবেশদ্বার বলেই পরিচিত চুরু যার উষ্ণতা পাকিস্তানের জাকোবাবাদের সমান, মঙ্গলবার পৃথিবীর সবচেয়ে উষ্ণ জায়গা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

তবে আপাতত চড়চড় করে বাড়ছে তাপমাত্রার পারদ। কার্যত সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে ভারতের উত্তর ও পশ্চিম দিকের রাজ্যগুলিতে। দিল্লি, চণ্ডীগড়, হরিয়ানা উত্তরপ্রদেশ সহ একাধিক রাজ্যে হিটওয়েভ বা তাপপ্রবাহের সতর্কতা জারি করা হয়েছিল আগেই। আর সেইমতই বাড়ল তাপমাত্রা।

আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে দিল্লি, পঞ্জাব, হরিয়ানার আগামী ২-৩ দিন আর উত্তরপ্রদেশে আগামী ৩-৪ দিন এই পরিস্থিতি চলবে। মে মাসে এ রকম পরিস্থিতি তৈরি হয় না। সাধারণত জুন মাসে এমন প্রকট গরমের প্রভাব পড়ে সেখানে। কিন্রতু সময়ের আগেই সেখানে শুরু হয়েছে গরমের তাণ্ডব। ২০১০-এর পর এই নিয়ে দ্বিতীয়বার মে মাসে এমন ভয়ঙ্করভাবে পারদ চড়ছে চুরুতে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প