দুবাই: গ্রুপে আফগানিস্তান ও সুপার-ফোরে ভারতের বিরুদ্ধে পর পর দু’টি ম্যাচে হারেই আতঙ্কিত বাংলাদেশ ক্রিকেট৷ পরিস্থতি এতটাই জটিল যে, টিম ম্যানেজমেন্টের উপর বোর্ড তথা নির্বাচকদের আস্থা অটুট কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ এমন ডামাডোলের মাঝে বাংলাদেশ নির্বাচকদের সিদ্ধান্তে টিম ম্যানেজমেন্ট তথা অধিনায়কের সঙ্গে তাঁদের সমন্বয়ের অভাব প্রকট হয়ে দেখা দিচ্ছে৷

আরও পড়ুন: সুপার ফোরে ‘বাঘ শিকার’ ভারতের

এশিয়া কাপে দলের পারফরম্যান্সে বদল আনতে বাংলাদেশ নির্বাচকরা তড়িঘড়ি দলে ঢুকিয়ে দেন দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার সৌম্য সরকার ও ইমরুল কায়েসকে৷ তবে কাউকে বাদ দেওয়া হয়নি৷ ১৬ জনের প্রাথমিক স্কোয়াডের সঙ্গে অতিরিক্ত ক্রিকেটার হিসাবে দু’জনকে জুড়ে দেওয়া হয়েছে৷

স্কোয়াডে বাড়তি ক্রিকেটার সংযোজনে বিকর্তিক কিছু নেই৷ তবে সেটা যদি অধিনায়কের অজান্তে হয়, তবে বিকর্কের প্রসঙ্গ উঠে আসে বইকি৷ ঠিক এমনটাই ঘটেছে বাংলাদেশের স্কোয়াড বদলের ক্ষেত্রে৷ অন্তত দলনায়ক মাশরাফি বিন মোর্তাজার কথা সত্যি হলে, তাঁকে এবং টিম ম্যানেজমেন্টকে না জানিয়েই নির্বাচকরা দুই ক্রিকেটারদের দলে ঢোকানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

আরও পড়ুন: ‘বনবাস’ কাটিয়ে রাজকীয় প্রত্যাবর্তন জাড্ডু’র

ভারতের বিরুদ্ধে হারের পর মোর্তাজা বলেন সৌম্য ও ইমরুলের দলে ঢোকা প্রসঙ্গে তিনি কিছুই জানেন না৷ তাঁর সঙ্গে কেউ এই নিয়ে আলোচনা করেননি৷ এমনকি, তাদের কেন দলের সঙ্গে যোগ দিতে বলা হয়েছে, তা নিয়েও বিন্দুমাত্র অবগত নন তিনি৷ যারা আসছেন, তারা কোনও বিপর্যয় মোকাবিলার কোর্স করে আসছেন কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক৷

মোর্তাজা বলেন, ‘যাদের পাঠানো হচ্ছে, তাদের সম্পর্কে আমার কাছে এখনও কোনও খবর নেই৷ এই নিয়ে আমার সঙ্গে কারও কোনও আলোচনা হয়নি৷ তাই বিষয়টি এখনও আমার কাছে স্পষ্ট নয়৷’

আরও পড়ুন: শান্তি চেয়ে জনগণ গাইলেন পাক ক্রিকেট ফ্যান

পরক্ষণে তিনি আরও বলেন, ‘ওরা (সৌম্য ও ইমরুল) বেশ কিছুদিন দলের বাইরে ছিল৷ সেটা পারফরম্যান্স অথবা অন্য যে কোনও কারণেই হোক৷ এখন এমন চাপের পরিস্থিতিতে ওরা দলে ফিরছে৷ আমি জানি না, নিজেদের খামতি ঢাকতে ওরা বিশেষ কোনও কাজ করেছে কি না৷ যে কারণে বাদ পড়েছিল, সেগুলো ওরা শুধরে নিয়েছে কি না, সে সম্পর্কেও আমি কিছু জানি না৷ অথচ টুর্নামেন্টে এর বড় প্রভাব পড়তে পারে৷’

অধিনায়ককে অন্ধকারে রেখে দলে রদবদলের এমন ছবি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরল৷ এই ছবিটাই বলে দিচ্ছে এই মুহূর্তে বাংলাদেশ ক্রিকেট কতটা অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে এগচ্ছে৷