বহরমপুর: ফের রেল পুলিশ অমানবিক মুখ৷পুলিশের ধাক্কায় চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে পা খোয়ালেন জোকা ডায়মন্ড পার্কের রাজা গুপ্তা নামের এক যুবক৷

জানা গিয়েছে, গত ২২ জুন জঙ্গিপুরে চাকরির ইন্টারভিউ দিতে যান ওই যুবক৷ ২৪ জুন রাতে রাজা জঙ্গিপুর স্টেশন থেকে ট্রেন ওঠেন৷ কিন্তু, তাঁর কাছে কামরূপ এক্সপ্রেসের সাধারণ টিকিট ছিল৷ কিন্তু, জেনারেল কামরার বদলে রাজ সংরক্ষিত কামরায় উঠে পড়েন৷ অভিযোগ, এরপর টিকিট পরীক্ষক টিকিট চাইলে রাজ তাঁর অসংরক্ষিত টিকিট দেখান৷ সাধারণ টিকিট কেটে সংরক্ষিত কমরায় ওঠান জন্য ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন ওই টিকিট পরীক্ষক৷ শুরু হয় তুমুল বিতর্ক৷ সাধারণ টিকিট নিয়ে সংরক্ষিত কামরায় ওঠার অপরাধে ওই যুবকে রেল পুলিশ ওই যুবকে চলন্ত ট্রেন থেকে ধাক্কা মারে অভিযোগ৷ ট্রেন থেকে পড়ে পা কাটা যায় ওই যুবকের৷ পরের স্টেশনে আজিমগঞ্জে নেমে যাবেন, এ কথাও বলেন ওই যুবক৷ তাঁদের আর্জিতে কান না দিয়ে পুলিশ রাজাকে ধাক্কা দেয় বলে অভিযোগ৷ পরে তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার হয়৷ আঘাত গুরুতর থাকায় তাঁর বাঁ পা বাদ দিয়ে দেন চিকিৎসকরা৷ পরে তাঁকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়৷ বর্তমানে সিএমআরআই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই যুবক৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.