আবুধাবি: উইমেন্স টি২০ চ্যালেঞ্জ খেলতে মরুশহরে পৌঁছে গেলেন দেশের প্রথম সারির ৩০ জন মহিলা ক্রিকেটার। ছেলেদের আইপিএলের সঙ্গেই আগামী ৪-৯ নভেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর শারজায় অনুষ্ঠিত হবে মেয়েদের আইপিএল বা উইমেন্স টি২০ চ্যালেঞ্জ। আর সেই টুর্নামেন্ট খেলতেই জাতীয় মহিলা দলের ক্রিকেটাররা বৃহস্পতিবার পৌঁছে গিয়েছেন সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে।

মুম্বইয়ের মাটিতে ন’দিনের কোয়ারেন্টাইনে কাটিয়ে এবং একাধিক আরটি-পিসিআর পরীক্ষার মাধ্যমে নিজেদের সুস্থ প্রমাণ করে মরুশহরে পৌঁছলেন অধিনায়িকা হরমনপ্রীত কর, ব্যাটসওম্যান স্মৃতি মন্ধনা, জেমিমা রডরিগেজরা। আপাতত ওদেশে গিয়ে ছ’দিনের কোয়ারেন্টাইন পর্ব কাটিয়ে জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশ করবেন ক্রিকেটাররা। কোয়ারেন্টাইনের প্রথম, তৃতীয় এবং পঞ্চমদিন কোভিড পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে মহিলা ক্রিকেটারদের। ওই তিনটি পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এলেই জৈব নিরাপত্তা বেষ্টনীতে প্রবেশের অনুমতি পাবেন হরমনপ্রীতরা।

দেশের মহিলা ক্রিকেটারদের মরুশহরে পৌঁছনোর ছবি নিজেদের টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করে তাদের স্বাগত জানিয়েছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ। টুর্নামেন্টের তিনটি দল সুপারনোভাস, ট্রেলব্লেজার্স এবং ভেলোসিটিকে নেতৃত্ব প্রদান করবেন যথাক্রমে হরমনপ্রীত কর, স্মৃতি মন্ধনা এবং মিতালি রাজরা। ভারতীয় ক্রিকেট তারকাদের সঙ্গে উইমেন্স টি২০ লিগে মেলবন্ধন ঘটবে ডিন্ড্রা ডোটিন, সোফি এক্লেস্টন, ড্যানিয়েল ওয়েট, চামারি আতাপাত্তুদের মত গ্লোবাল ক্রিকেট তারকাদের।

ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ তারকাদের পাশপাশি উইমেন্স টি২০ চ্যালেঞ্জে চলতি বছর দেখা যাবে থাইল্যান্ড তারকা নাতহাকান চান্থামকে। দেশের হয়ে টি২০ বিশ্বকাপের প্রথম অর্ধশতরানকারী চান্থামের মুকুটে নয়া পালক যোগ হতে চলেছে। থাইল্যান্ডের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে স্মৃতি মন্ধনা নেতৃত্বাধীন ট্রেলবেজার্সের হয়ে খেলতে দেখা যাবে তাঁকে। উল্লেখ্য, আগামী ৪ নভেম্বর গত মরশুমের ফাইনালিস্ট সুপারনোভাসের সঙ্গে প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভেলোসিটি।

একনজরে তিনটি দলের সম্পূর্ণ স্কোয়াড-

সুপারনোভাস: হরমনপ্রীত কর (অধিনায়ক), জেমিমা রডরগেজ, চামারি আতাপাত্তু, প্রিয়া পুনিয়া, অনুজা পাতিল, রাধা যাদব, তানিয়া ভাটিয়া, শশীকলা স্রিবর্ধনে, পুনম যাদব, শাকিরা সেলমন, অরুন্ধতী রেড্ডি, পুজা বস্ত্রকার, আয়ুষি সোনি, আয়াবোঙ্গা খাকা, মুসকান মালিক।

ট্রেলব্লেজার্স: স্মৃতি মন্ধনা (অধিনায়ক), দীপ্তি শর্মা, পুনম রাউত, রিচা ঘোষ, ডি হেমলতা, নুজাত পারবীন, রাজেশ্বরী গায়কোয়াড়, হার্লিন দেওল, ঝুলন গোস্বামী, সিমরন দিল বাহাদুর, সালমা খাতুন, সোফি এক্লেস্টন, নাতহাকান চান্থাম, ডিন্ড্রা ডোতিন, কাশভী গৌতম।

ভেলোসিটি: মিতালি রাজ (অধিনায়ক), শেফালি বর্মা, বেদা কৃষ্ণমূর্তি, সুষমা বর্মা, একতা বিস্ত, মানসী যোশি, শিখা পান্ডে, দেবিকা বৈদ্য, সুশ্রী দিব্যদর্শিনী, মানালি দক্ষিণী, লেঘ কাসপেরেক, ড্যানিয়েল ওয়েট, সুন লুস, জাহানারা আলম, এম আনাঘা।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।