ফাইল ছবি

চণ্ডীগড়:‌ করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের বেনজির সম্মান রাজ্য সরকারের। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় দিনরাত এক করে কাজ করা চিকিৎসক, নার্স-সহ স্বাস্থ্যকর্মীদের বেতন দ্বিগুণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হরিয়ানা সরকার।

স্বাস্থ্যকর্মীরা একজোট হয়ে মারণ এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে নিরন্তর লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। তাই তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতেই এই সিদ্ধান্ত মনোহরলাল খট্টরের সরকারের।

কোভিড-19-এর বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়ছে গোটা বিশ্ব। মহামারী রুখতে সামনের সারিতে ঢাল হয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন আমাদের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাই তাঁদের সম্মান জানাতে অভূতপূর্ব সিদ্ধান্ত নিল হরিয়ানা সরকার।

জীবন বাজি রেখে যাঁরা করোনার বিরুদ্ধে লড়ছেন সেই সরকারি চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের বেতন এক ধাক্কায় দ্বিগুণ করল হরিয়ানা সরকার।

একটি বিবৃতিতে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর জানিয়েছেন, যতদিন পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসছে, ততদিন করোনার বিরুদ্ধে মরণপণ এই লড়াই জারি থাকবে। দ্বিগুণ বেতন দেওয়া হবে করোনায় চিকিৎসারত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের।

এরই পাশাপাশি করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সচেতনতার পাঠ দিতে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন পুলিশকর্মীরাও। সমাজকে সুরক্ষিত রাখতে পুলিশকর্মীরা আজ পথে। গোটা দেশ যখন বাড়িতে থেকে লকডাউন পালন করছে, তখন বিপদের ঝুঁকি নিয়েও রাস্তায় বেরিয়ে করোনা সচেতনতার পাঠ দিচ্ছেন পুলিশকর্মীরা।

হরিয়ানা সরকার তাঁদের জন্যও বিশেষ পদক্ষেপ করেছে। মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর জানিয়েছেন, কর্তব্যরত অবস্থায় কোনও পুলিশকর্মীর মৃত্যু হলে, ৩০ লক্ষ টাকার বিমা দেওয়া হবে তাঁর পরিবারকে।