নয়াদিল্লি: আইপিএলে এখনও যা পারফরম্যান্স তাতে সর্বোচ্চ পর্যায়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার ক্ষমতা রয়েছে তাঁর। এমনটাই মত বিশ্বকাপ জয়ী জাতীয় দলের অফ-স্পিনার হরভজন সিং’য়ের।

আগামী জুলাইয়ে পা দেবেন চল্লিশে। তবু সম্প্রতি ক্রিকইনফোকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আত্মবিশ্বাস ঝরে পড়ল টার্বুনেটরের গলায়। চার বছর হল ছিটকে গিয়েছেন জাতীয় দলের কক্ষপথ থেকে। ২০১৭ পর আর খেলেননি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটও। তবু হরভজন আশাবাদী ব্লু জার্সি গায়ে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফর্ম্যাটে প্রতিনিধিত্ব করার রসদ তাঁর মধ্যে এখনও রয়েছে। যার প্রমাণ ২০১৯ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ। গত আইপিএল মরশুমে ১১ ম্যাচে ১৬ উইকেট ঝুলিতে নিয়েছিলেন ভাজ্জি। সেরা বোলিং ফিগার ২০ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট।

এহেন হরভজন ক্রিকইনফোকে জানালেন, ‘আমি এখনও প্রস্তুত। আইপিএল বোলারদের জন্য কঠিন একটা টুর্নামেন্ট। মাঠগুলো তুলনায় ছোট। বিশ্বের তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানরা অংশগ্রহণ করে সেখানে। তাদের বিরুদ্ধে নিজেকে মেলে ধরা ভীষণ চ্যালেঞ্জিং। আমি সেখানে যদি ভালো বোলিং করতে পারি তাহলে বিশ্বাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও পারব।’

হরভজন আরও বলেন, ‘নির্বাচকরা আমার কথা ভাবেন না কারণ আমার বয়স অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটও আর খেলি না। গত চার-পাচ বছরে আইপিএলে ভালো পারফরম্যান্স করা সত্ত্বেও ওরা আমার কথা ভেবে দেখেনি।’

খানিকটা অভিমানের সুরেই ভাজ্জি বলেন, ‘আমি জানি অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের মতো দলগুলোর ব্যাটিং লাইন-আপ ভীষণ শক্তিশালী। কিন্তু আমি আইপিএলে যদি জনি বেয়ারস্টো, ডেভিড ওয়ার্নারদের প্যাভিলিয়নে ফেরাতে পারি তাহলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কেন পারব না? কিন্তু বিষয়টা আমার হাতে নেই। বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেটের যা পরিকাঠামো তাতে কেউ এসে তোমার সঙ্গে কথা বলবে না।’

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব