ফাইল ছবি

কলকাতা: করোনা নিয়ে আবারও বেফাঁস বিজেপি নেতা। এবার মারণ ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে হনুমানজিকে স্মরণ করার পরামর্শ বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার। বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদকের কথায়, ‘হনুমানজিকে স্মরণ করলেই মারণ ভাইরাস করোনা দূরীভূত হতে পারে। হনুমান জয়ন্তীতে বজরংবলী অবতীর্ণ হয়েছিলেন। সংকট থেকে জগৎকে উদ্ধার করেছিলেন। সবাই সংকটের এই সময়ে বজরংবলীকে স্মরণ করি।’ যদিও রাহুল সিনহার এই মন্তব্য ঘিরে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

করোনা ভাইরাস নিয়ে ফের অদ্ভুত পরামর্শ বিজেপি নেতার। এবার মারণ ভাইরাস থেকে বাঁচতে হনুমান পুজোর পরামর্শ রাহুল সিনহার। এর আগে বিজেপির একাধিক নেতা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে নানা উপায়ের কথা বলেছেন। খো বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও করোনা থেকে বাঁচতে গোমূত্র পান করার কথা বলেছিলেন। দিলীপের সেই মন্তব্য নিয়েও বিতর্কের ঝড় উঠেছিল।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদ তো দেশজুড়ে করোনার সংক্রমণ রুখতে গোমূত্র পার্টিরও আয়োজন করে। দেশের একাধিক শহরে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের উদ্যোগে রীতিমতো শিবির করে গোমূত্র পান করানোর ব্যবস্থা হয়। এমনকী খাস কলকাতাতেও বিজেপি নেতারা গোমূত্র পান করে করোনা-মুক্তির প্রচার চালান। জোড়াসাঁকো এলাকায় এক বিজেপি নেতাকে করোনা থেকে বাঁচতে গোমূত্র অন্যদের পান করাতে দেখা যায়।

এবার ভয়াল ভাইরাসের হাত থেকে নিস্তার পেতে হনুমান পুজোর পরামর্শ বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার। তাঁর দাবি, ‘সংকটের এই সময়ে হনুমানজিকে স্মরণ করলে তিনিই গোটা বিশ্বকে উদ্ধার করবেন।’ যদিও মারণ এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে মানুষকে আরও বেশি সচেতন হতে হবে বলেও জানিয়েছেন রাহুল সিনহা।

ইতিমধ্যেই গোটা বিশ্বে ১৪ লক্ষ ৯৩ হাজার ৭২৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারণ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গোটা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত ৮৭ হাজার ৪৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে ৯৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও বুধবারই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন বাংলায় এখনো পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মোট ৭১ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্রেই সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মহারাষ্ট্রে বুধবার পর্যন্ত ১০১৮ জন মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যার নিরিখে মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে তামিলনাড়ু। দক্ষিণের এই রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা ৬৯০।

করোনা আক্রান্তের নিরিখে তামিলনাড়ুর পরেই রয়েছে দিল্লি। রাজধানীতে এখনও পর্যন্ত ৫৭৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের প্রকাশিত বিবৃতিতে জানা গিয়েছে, বুধবার পর্যন্ত গোটা দেশে মোট ৫৭২৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যাঁদের মধ্যে ৪১১ জন সুস্থ হয়ে ফিরেছেন। এদিন পর্যন্ত দেশে করোনায় মোট মৃত ১৪৯।