হ্যামিল্টন: টেস্ট অভিষেক হওয়ার পর থেকে এপর্যন্ত মিডল অর্ডারে টিম ইন্ডিয়াকে নির্ভরতা দিয়েছেন হনুমা বিহারী। নিউজিল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজের আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি করে টিম ম্যানেজমেন্টকে আশ্বস্ত করেছেন তিনি। নিউজিল্যান্ড একাদশের বিরুদ্ধে অনুশীলন ম্যাচের অনবদ্য শতরানে হনুমা শুধু প্রথম একাদশে নিজের জায়গা নিশ্চিত করেছেন এমনটাই নয়, বরং একই সঙ্গে তিনি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন পৃথ্বী শ, শুভমন গিলের মতো তরুণ ওপেনারদের। বিহারীর স্পষ্ট মত, দলের প্রয়োজনে তিনি ওপেন করতেও রাজি।

আসলে রোহিত শর্মা চোট পেয়ে কিউয়ি সফর থেকে ছিটকে যাওয়ার পর টেস্ট সিরিজে ময়াঙ্কের সঙ্গী হিসেবে একজন নতুন ওপেনারের প্রয়োজন ভারতের। এক প্রান্ত দিয়ে আগরওয়াল ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নামবেন নিশ্চিত। যদিও তিনি ছন্দে রয়েছেনন এমনটা বলা যাবেনা। টেস্ট সিরিজের আগে তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন আগরওয়াল। তবে যেহেতু টেস্ট ফর্ম্যাটে তিনি ইতিমধ্যেই জাতীয় দলে জায়গা পাকা করে রেখেছেন, তাই তাঁকে ওপেন থেকে সরানো হবে বলে মনে হয় না।

এক্ষেত্রে পৃথ্বী শ ও শুভমন গিলের মধ্য থেকে একজনকে মাঠে নামানো হবে আগরওয়ালের সঙ্গী হিসেবে। পৃথ্বী এর আগে দু’টি টেস্টে ভারতের হয়ে ওপেন করেছেন। ব্যাট হাতে সফলও হয়েছেন তিনি। অন্যদিকে গিল টেস্ট অভিষেকের অপেক্ষায় রয়েছেন। তবে ভারতীয়-এ দলের হয়ে নিয়মিত বড় রান করে চলেছেন শুভমন। তাঁর ধৈর্যশীল লম্বা ইনিংসগুলি টিম ম্যানেজমেন্টকে নতুন করে ভাবাতে বাধ্য। যদিও অনুশীলন ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ডিল ও পৃথ্বী দু’জনেই ব্যর্থ হয়েছেন।

এই অবস্থায় প্র্যাক্টিস ম্যাচে শতরান করা বিহারী জানান যে, তাঁকে কেউ ওপেন করার কথা এখনও পর্যন্ত বলেনি। তবে দলের প্রয়োজন হলে তিনি ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে প্রস্তুত। ওপেনিং প্রসঙ্গে বিহারী বলেন, ‘একজন ক্রিকেটার হিসেবে আমি যে কোনও জায়গায় যে কোনও পরিস্থিতিতে ব্যাট করতে প্রস্তুত। এখনও পর্যন্ত আমাকে কিছু জানানো হয়নি। তবে আমি আগেও বলেছি, দলের প্রয়োজন মতো আমি ব্যাটিং অর্ডারের যে কোনও জায়গায় ব্যাট করতে প্রস্তুত।’

প্র্যাক্টিস ম্যাচের পারফর্ম্যান্স দেখে তিন নবাগত ওপেনারকে নিয়ে সংশয়ে রয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। নিউজিল্যান্ডের বাউন্সি পিচে কিউয়ি পেসারদের মোকাবিলা করা যে সহজ হবে না, সেটা বোঝার জন্য ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন নেই। প্রস্তুতি ম্যাচে ৬ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে বিহারী যেভাবে সামলান নিউজিল্যান্ডে বোলিং আক্রমনকে, তাতে তাঁকে ওপেনার হিসেবে ব্যবহারের সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব