ফাইল ছবি

পুরুলিয়া: লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন ফের উদ্ধার বিজেপি কর্মীর মৃতদেহ। আবারও পুরুলিয়ায়। বৃহস্পতিবার একদিকে যখন দেশে দ্বিতীয় দফার ভোট চলছে, তার মধ্যে পুরুলিয়ায় গাছ থেকে উদ্ধার হল বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ।

এদিন সকালে পুরুলিয়ার বাগমুন্ডির আড়ষা থানা এলাকার সেনাবনা গ্রাম থেকে ওই দেহ উদ্ধার হয়েছে। জানা গিয়েছে, গ্রামবাসীদের চোখ প্রথম পড়ে ওই ঘটনা। মৃতের নাম শিশুপাল সহিস, বয়স ২২ বছর। বিজেপির যুব মোর্চার সদস্য ছিলেন তিনি।

সেনাবনা গ্রামের বাসিন্দা শিশুপালের বাবা গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয়ী সদস্য। তাঁর বাবা যাদব সহিস সিরকাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

যাদব সহিস ও স্থানীয় বিজেপি সমর্থকদের অভিযোগ তৃণমূল সমর্থকদের বিরুদ্ধে। শিশুপালকে খুন করে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি বিজেপি। যদিও এখনও খুন না আত্মহত্যা তা প্রমাণিত হয়নি।

পুরুলিয়ায় এর আগেও এরকম ঘটনা ঘটেছে। দুলাল কুমার ও ত্রিলোচন মাহাতো নামে দুই বিজেপি কর্মীর এহ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছিল পঞ্চায়ের নির্বাচনের কিছুদিন আগে। বিজেপির দাবি, তাদের খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

ত্রিলোচন মাহাতোর মৃতদেহের জামায় এবং একটি কাগজে একটি নোটও লিখে রেখে যায় আততায়ীরা৷ সেখানে লেখা ছিল, ‘‘ এমনটা ঘটল কারণ ১৮ বছর বয়সে বিজেপি-র হয়ে রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার জন্য ৷ ভোটের সময় থেকেই তোকে মারার চেষ্টা করছিলাম আমরা ৷ আজ তুই শেষ ৷’’

সেই মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। পুরুলিয়ায় বিজেপি কর্মীর হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সিবিআই তদন্তের আর্জি জানিয়ে মামলা করে বিজেপি। শুনানিতে রাজ্য সরকারের কাছে রিপোর্ট তলব করে সর্বোচ্চ আদালত।