স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: খাস কলকাতার বুকে অস্বাভাবিক ভাবে মৃত্যু হল এক যুবতীর৷ বৃহস্পতিবার সকালে ওই যুবতীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়৷

কলকাতার মুচিপাড়া থানার যে বাড়ি থেকে ওই যুবতীর মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে, তিনি সেই বাড়িতেই পরিচারিকার কাজ করতেন৷ ফলে এই ঘটনায় রহস্য দানা বাঁধতে শুরু করেছে৷

আরও পড়ুন: বাংলাদেশে ঘূর্ণাবর্তে স্বস্তির বৃষ্টির সম্ভাবনা বাংলায়

মুচিপাড়া থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, স্থানীয় স্কট লেনের একটি বাড়িতে ওই যুবতী পরিচারিকার কাজ করতেন৷ তাঁর নাম শর্মিলা সরকার (২১)৷ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ শর্মিলার গৃহকর্তার বাড়ি থেকে ফোন আসে থানায়৷ পুলিশকে পরিচারিকার ঘরের দরজা ভাঙে৷ ঘরের ভিতর থেকে মেয়েটির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, মেয়েটি নদিয়ার বেথুয়াডহরির বাসিন্দা৷ কয়েকমাস আগে তিনি কাজে যোগ দিয়েছিলেন৷ তাঁর পরিবারকেও খবর দেওয়া হয়েছে৷ কিন্তু এভাবে অস্বাভাবিক মৃত্যু কেন? তিনি কি আত্মঘাতী হলেন? নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে মৃত্যুর পিছনে! আত্মহত্যা করলে কেন আত্মহত্যা করলেন, উঠছে সেই প্রশ্নও৷

আরও পড়ুন: দিলীপ ঘোষকে গ্রেফতার করলেই পুরস্কৃত হবেন মমতা

পুলিশ জানিয়েছে, একটি মোবাইল উদ্ধার হয়েছে ওই ঘর থেকে৷ মোবাইলটি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে৷ মোবাইলের কল লিস্ট খতিয়ে দেখা হবে৷ মোবাইল থেকেও কোনও সূত্র পাওয়া যায় কি না দেখবে পুলিশ৷ এর পিছনে প্রেম বা পরকীয়া জড়িয়ে আছে, সেটাও খতিয়ে দেখতে চায় পুলিশ৷ ঘটনার সঙ্গে গৃহকর্তার পরিবারের বা ওই এলাকার কেউ জড়িত আছে কি না, সেটাও দেখতে চায় পুলিশ৷ একই সঙ্গে খোঁজ করা হবে বেথুয়াডহরিতেও৷

আরও পড়ুন: কুণাল নাকি তৃণমূলেই আছেন