চন্ডীগড় : মর্মান্তিক৷ নৃশংস৷ এভাবেই এই ধরণের ঘটনার ব্যাখ্যা দেওয়া যায়৷ বছর আটের কন্যা সন্তানকে লাগাতার ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার বাবা৷ হরিয়ানার গুরগাঁওতে এমনই ঘটনা ঘটেছে৷ চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীটি অসুস্থ হয়ে পড়েছে৷ তাকে হাসপাতালে ভরতি করতে হয়েছে৷

গত বেশ কয়েক মাস ধরে তাকে তার বাবা লাগাতার ধর্ষণ করে আসছে বলে পুলিশ সূত্রের খবর৷ স্থানীয় বাসিন্দারা গোটা বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশে খবর দিলে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়৷

আরও পড়ুন : অন্য যুবকের সঙ্গে সম্পর্কের সন্দেহ, স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন স্বামীর

জানা গিয়েছে, বাবার নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচতে ওই শিশুটিই প্রতিবেশিদের নিজের অবস্থার কথা জানায়৷ বেশ কয়েকদিন ধরে শিশুটি স্বাভাবিক আচরণ করছিল না৷ তখন প্রতিবেশিরা সন্দেহ করে তাকে জিজ্ঞাসা করলে মেয়েটি সব খুলে বলে৷ তারপরেই পুলিশে খবর দেওয়া হয়৷

হরিয়ানার এসিপি (ক্রাইম) সামশের সিং জানান, মেয়েটিকে তার বাবা পাতৌদি এলাকায় থাকত৷ বেশ কয়েক মাস মেয়েটির মায়ের মৃত্যু হয়৷ তারপর থেকেই যৌন অত্যাচার শুরু হয় তার বাবার৷ প্রতি রাতেই নাবালিকাকে ধর্ষণ করা হত বলে পুলিশ জানিয়েছে৷ মদ্যপান করে শিশুটিকে মারধর করত তার বাবা বলে খবর৷

আরও পড়ুন : সমকামী নন, জানালেন অজি ক্রিকেট তারকা ফকনার

পুলিশ জানিয়েছে নির্যাতিতা মেয়েটিকে কাউন্সিলিংয়ের জন্য চাইল্ড অবজারভেশন সেন্টারে পাঠানো হবে৷ তবে তার আগে মেয়েটিকে চিকিৎসার মাধ্যমে শারীরিক দিক থেকে সুস্থ করে তোলার দায়িত্ব নেওয়া হয়েছে৷