গান্ধীনগর: বাসে করে পিকনিকে যাচ্ছিল পড়ুয়ারা৷ সবাই ছিল খোশমেজাজে৷ কিছুক্ষণ বাদেই তাদের কোলাহল বদলে গেল আর্তনাদে৷ আনন্দ পরিণত হল বিষাদে৷ ২০০ ফুট গভীর খাদে বাসটি পড়ে মৃত্যু হল ১০ পড়ুয়ার৷ জখম আরও ৪০ জন৷ একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এমনটাই জানানো হয়েছে৷

মর্মান্তিক ঘটনাটি শনিবার দক্ষিণ গুজরাতের ড্যাং জেলার৷ খবর পাওয়ার পরই ছুটে যায় পুলিশ ও উদ্ধারবাহিনী৷ জখমদের উদ্ধার করে দ্রুত তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সঠিক সংখ্যা জানা না গেলেও অনুমান সেই সময় বাসে ছিল ৫০ থেকে ৭০ জন পড়ুয়া৷ সকলেই কম বেশি জখম হয়েছে৷ তবে সূত্রের খবর ২০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷

জেলার পুলিশ সুপার শ্বেতা শ্রীমালি জানান, দুর্ঘটনাটি ঘটেছে সুবীর পুলিশ থানা এলাকায়৷ বাসটির গতি খুব বেশি ছিল৷ খাদের কাছে আসতেই চালক নিয়ন্ত্রণ হারায়৷ যার জেরে খাদে পড়ে যায় বাসটি৷ যেখানে দুর্ঘটনা ঘটেছে সেখানে মোবাইল নেটওর্য়াক সবসময় পাওয়া যায় না৷ তার মধ্যেও যতটা সম্ভব উদ্ধারকাজ করা হচ্ছে৷ বাসের সকল পড়ুয়া সুরাটের একটি টিউশন সেন্টারের ছাত্র৷ ড্যাং জেলার ঐতিহাসিক স্থান দেখতে তারা এসেছিল৷