পাটনা: চূড়ান্ত অসতর্কতার পরিণাম। আগে থেকেই জ্বর, সর্দি, কাশির উপসর্গ ছিল পেশায় ইঞ্জিনিয়ার এক যুবকের। তবুও চিকিৎসকের কাছে যাননি বা করোনা পরীক্ষাও করাননি। উল্টে নির্ধারিত দিনে বিয়ে করেন পাটনার ওই যুবক। জাঁকজমকপূর্ণ সেই বিয়েবাড়িতে সাড়ে তিনশোরও বেশি আমন্ত্রিত পাত পেড়ে খেয়েছেন।

এলাহি সেই বিয়ে সেরে ফেরার পথেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন বর। দিন কয়েক পরে হাসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়। এদিকে, বিয়েবাড়িতে কব্জি ডুবিয়ে বরের পাশে বসে খেয়ে, আড্ডা দিয়ে করোনায় সংক্রমিত হন বেশ কয়েকজন। পরে শ্মশানে যুবকের দেহ দাহ করতে গিয়েও সংক্রমিত হন অনেকে। সব মিলিয়ে এক যুবকের অসতর্কতার মাশুল দিচ্ছেন শতাধিক ব্যক্তি।

জ্বর, সর্দি, কাশি প্রতিটিই মারণ করোনার অন্যতম প্রধান উপসর্গ। শুরু থেকেই এই উপসর্গগুলি দেখা দিলে দেরি না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তারপর করোনা পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে অসুস্থ ব্যক্তিকে।

সরকারিস্তর থেকে এই বিষয়গুলি নিয়ে সংবাদমাধ্যম মারফত বা অন্য উপায়ে বারবার প্রচার করা হচ্ছে। তবুও সতর্ক হচ্ছেন না অনেকে। মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। তারই পরিণাম দিলেন পাটনার ওই যুবক।

করোনা আবহেই সাড়ে তিনশোর বেশি আমন্ত্রিত বিয়েবাড়িতে। জাঁকজমক আবহেই সম্পন্ন হয় বিয়ে। বিয়েবাড়িতে কারও মুখে মাস্ক ছিল না। সামাজিক দূরত্ববিধি শিকেয় তুলে দেদার আনন্দানুষ্ঠান চলে কয়েক ঘণ্টা ধরে। আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন বর।

এরপর বিয়ে সেড়ে বাড়ি ফেরার পথেই অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে বরের। হাসপাতালে তাঁকে নিয়ে যাওয়ার কয়েকদিন পরেই মৃত্যু হয় তাঁর। করোনা পরীক্ষা না করিয়েই মৃতদেহের শেষকৃত্য করানো হয়। যুবকের শেষকৃত্যেও বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয় মিলিয়ে প্রায় ৫০ জন সামিল ছিলেন।

এদিকে, পাটনার পালিগঞ্জে ১৫ জুন ওই বিয়ের অনুষ্ঠানটি হয়। অসুস্থ থাকায় ওষুধ খেয়ে গুরুগ্রাম থেকে বিয়ে করতে এসেছিলেন বর। তবে শেষরক্ষা হল না। যুবকের তো মৃত্যু হলই, মারণ ভাইরপাসে সংক্রমিত হয়ে পড়লেন শতাধিক ব্যক্তি।

ওই বিয়ে বাড়ি থেকে বাড়ি যাওয়ার পর বেশ কয়েকজন অসুস্থ বোধ করেন। পরে তাঁদের ও পরে যুবকের শেষকৃত্যে যোগ দেওয়া শতাধিক মানুষের করোনা পরীক্ষা করানো হয়। ১১১ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

এদিকে, এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় বিহারের রাজধানী পাটনায়। প্রশাসনের নজরদারির গাফিলতি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। যদিও প্রশাসনের কর্তারা জানিয়েছেন, বিয়ে নিয়ে তাঁদের কাছে আগাম কোনও খবর ছিল না।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ