শ্রীনগর: পুলওয়ামা হামলার ক্ষত এখনও মিলিয়ে যায়নি৷ তারই মাঝে গ্রেনেড হামলায় কেঁপে উঠল জম্মু৷ বৃহস্পতিবার সকালে একটি বাসে গ্রেনেড হামলার জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷ কমপক্ষে ২৬ জন আহত হয়েছে৷ এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ আহতদের স্থানীয়দের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷

গ্রেনেড হামলাটি হয়েছে শহরের প্রাণকেন্দ্রের একটি বাসস্ট্যান্ডে৷ স্থানীয়রা জানিয়েছেন, আহতরা অধিকাংশ বাস চালক ও খালাসি৷ বাসে কোনও লোক ছিল কিনা তা পরিস্কার নয়৷ ঘটনার কথা বলতে গিয়ে স্থানীয়রা জানান, সকাল এগারোটার পর বিকট শব্দে চমকে যান সকলে৷ তারা প্রথমে ভাবেন টায়ার ফেটেছে৷ কিন্তু ভুল ভাঙে কিছুক্ষণ পর৷ বাসস্ট্যান্ড থেকে আর্তনাদের শব্দ শুনে ছুটে যান সকলে৷ গোটা এলাকা ধোঁয়ায় ভরে যায়৷ সেখান থেকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷

জম্মুর সিনিয়র পুলিশ অফিসার মণীশ কুমার সিনহা সাংবাদিকদের জানান, হামলাটি হয়েছে সকাল ১১টা ৩০ মিনিট নাগাদ৷ দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাস লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছোঁড়া হয়৷ খবর পাওয়া মাত্র ছুটে যায় পুলিশ৷ শুরু হয়েছে তদন্ত৷ কোনও জঙ্গি সংগঠন হামলার দায় স্বীকার করেনি৷ এই নিয়ে তৃতীয় গ্রেনেড হামলা করে জঙ্গিরা৷

গত মাসেই পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জনভয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ঘটনায় শহিদ হন ৪০ জন জওয়ান। এরপর থেকেই সীমান্তে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বিভিন্ন জায়গায় জঙ্গিদের এনকাউন্টারে খতম করছে সেনবাহিনী। এদিনের বিস্ফোরণের সঙ্গে জঙ্গিযোগ আছে কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে পুলওয়ামার রেশ না কাটতেই এদিনের বিস্ফোরণ নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে।