নুউক: যেভাবে গরম বাড়ছে তাতে পরিবেশবিদ থেকে বিজ্ঞানী সকলেরই কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ৷ কারণ গোটা বিশ্বজুড়েই তাপমাত্রা বেড়েই চলেছে। আর এই রকম বিশ্ব উষ্ণায়নের জেরে প্রকৃতির চরিত্রও বদলেছে যাচ্ছে। দেখা যাচ্ছে কোথাও প্রবল ঠান্ডা আবার কোথাও বা তাপপ্রবাহের জেরে মৃত্যু হচ্ছে মানুষের। আবার কোথাও বৃষ্টির জেরে বন্যা তো কোথাও আবার জলহীন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে একেবারে খরার কবলে পড়তে হচ্ছে – জুটছে না সামান্য পানীয় জলও।

এই পরিস্থিতিতে পরিবেশ বিজ্ঞানীরা লক্ষ্য করেছেন, গরমের দেশগুলিতে যখন গ্রীষ্মকাল চলে সেই সময়ে সাধারণত বরফ গলতে থাকে গ্রিনল্যান্ডের। কিন্তু চলতি বছরে দেখা গিয়েছে এই বরফগলার পরিমাণটা তুলনায় অনেক বেশি৷ আর সেটা নিয়েই আশংকা প্রকাশ করেছেন পরিবেশ বিজ্ঞানীরা৷

পড়ুন: চিনে প্রবল ভূমিকম্পে মৃত ১১, জখম শতাধিক

পর্যবেক্ষণ করে দেখা গিয়েছে, মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রিনল্যান্ডে ২ বিলিয়ান টন (যা প্রায় ১ লক্ষ ৮১ হাজার ৪৩৭ কোটি কিলোগ্রাম) ওজনের পাহাড় সমান বরফের চাঁই গলে গিয়েছে৷ যার ফলে জর্জিয়া ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞানী গবেষক থমাস মোটির অভিমত, এটা স্বাভাবিক ঘটনা নয়৷

তবে হঠাৎ করে এই বিপুল পরিমাণ বরফ গলে যাওয়ার ঘটনা অস্বাভাবিক হলেও নতুন নয়। তাঁর বক্তব্য, বিগত প্রায় দু’ দশক ধরেই গ্রিনল্যান্ডের ধারাবাহিক ভাবে বরফ গলে যাওয়ার জেরে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতাও ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। তার থেকেও চিন্তার বিষয় হল- এই বরফ গলার পরিমাণও ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছে।