কলকাতা : বাংলায় গোয়েন্দার সংখ্যা অনেক। ব্যোমকেশ, ফেলুদা আজ বাঙালির মন জয় করে রেখেছে। তবে এবার আসতে চলেছে এক ঝাক খুদে গোয়েন্দারা। ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়ের হাত ধরেই আবির্ভাব হবে খুদে গোয়েন্দা যার নাম ‘তাতার’।পরিচালনায় রয়েছেন শ্রীকান্ত গোলুই । স্কুল জীবনের এই গল্পকে নাটকের মাধ্যমে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তখন তা সফল না হলেও আজ তিনি এই গল্পকে ছবির রূপ দিয়েছেন। সদ্য মুক্তি পেয়েছে ছবির ট্রেলার।

দিন কতক আগেই হয়এছে ছবির মিউজিক লঞ্চ৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, রজতাভ দত্ত, অধিরাজ গঙ্গোপাধ্যায় (তাতার), গোয়েন্দা তাতারের বাকি কলাকুশলিরা৷ এছাড়াও বিশেষ অথিতি হিসেবে ছিলেন প্রিয়াঙ্কা সরকার৷ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়ের আরেক কীর্তি ‘পান্ডব গোয়েন্দা’র কথা কারও অজানা নয়। ‘চতুর গোয়েন্দা চতুরাভিধান’ গল্প অবলম্বনে তৈরি করা হয়েছে ‘গোয়েন্দা তাতার’।

  

এবার আসা যাক ছবির গল্পে৷ চিত্রনাট্য অনুযায়ী, ছবিতে অধিরাজ গঙ্গোপাধ্যায় (তাতার) রয়েছে মুখ্য চরিত্রে। সপ্তম শ্রেনির ছাত্র। মা,বাবা এবং এক বোনের সঙ্গে কলকাতার এক নামজাদা জায়গায় বাস করে। বাড়ির সামনে একজন লোক নাম সুলেমান খেলা দেখাতে আসে।

এই লোকটির সঙ্গে ছিল তার মেয়ে এবং দুজন পোষ্য (বাদর এবং কুকুর)। খেলায় মেতেছিল তাতার এবং তার বাকি বন্ধুরা। হটাত ছন্দপতন। সুলেমানের পুরনো শত্রু (আব্বাস) এসে পড়ে সেখানে। আর তার পরই গল্প মোর ঘোরে অন্যদিকে। এরই মাঝে তাতারের এক বন্ধু কিডন্যাপ হয়ে যায়। তাকে বাঁচানোর জন্য চলে অদম্য লড়াই।

তাতার এবং তার বাকি বন্ধুরা মিলে কীভাবে তাঁদের কিডন্যাপ হওয়া বন্ধুকে বাঁচাবে তার উত্তর রয়েছে ‘গোয়েন্দা তাতার’-এ।ছবিতে অন্যান্য চরিত্রে আছেন রজতাভ দত্ত, খরাজ মুখোপাধ্যায়, মনু মুখোপাধ্যায়, শান্তিলাল মুখোপাধ্যায় তমাল রায়চৌধুরি সহ অন্যান্য কলাকুশলিরা। সূত্রের খবর, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে মুক্তি পাবে ‘গোয়েন্দা তাতার’।

দেখুন ভিডিও

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।