কলকাতা: বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার৷ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হলে, এবার মৃতদেহ দেখতে পাবেন পরিবারের সদস্যরা৷

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়ে মৃত্যু হলে, সেই মৃতদেহ থেকে সংক্রমণ হতে পারে৷ এমন আশঙ্কায় এতদিন কারও করোনায় মৃত্যু হলে, দেহ পরিবারের সদস্যদের দেখতে দেওয়ার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি ছিল৷ নির্দিষ্ট গাইডলাইন মেনে হাসপাতাল থেকে আলাদা গাড়িতে করে সরাসরি ধাপার মাঠে নিয়ে গিয়ে সৎকার করা হচ্ছিল৷

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, করোনায় মৃত্যু হলেও এবার থেকে মৃতদেহ দেখতে পাবেন পরিবারের সদস্যরা৷ যে হাসপাতালে করোনা রোগীর মৃত্যু হবে, সেখানেই পরিবারের সদস্যরা মৃতদেহ দেখার সুযোগ পাবেন৷ তবে মেনে চলতে হবে কিছু নিয়ম৷

পরিবারের সদস্যরা দেখতে পান তারজন্য এবার থেকে দেহ মোড়া হবে স্বচ্ছ প্লাস্টিকে৷ হাসপাতালের নির্দিষ্ট জায়গায় রাখা হবে মৃতদেহ৷ দূর থেকে পরিবারের সদস্যরা শেষ বারেরমত প্রিয়জনকে দেখতে পাবেন৷ তারপর নিয়ম মেনে হবে সৎকার।

বাংলার প্রথম করোনায় মৃত্যু হওয়ার পরই রাজ্য সরকার সৎকার নিয়ে বিশেষ ব্যবস্থার নির্দেশ দিয়েছিল৷ নবান্নের বৈঠক থেকে মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দেন, শেষকৃত্য যেন একেবারে নিয়ম মেনে পালন করা হয়। যাতে সৎকারের সময়ে জীবাণু না ছড়িয়ে পড়ে।

মৃত ব্যাক্তির দেহ থেকে যেন সংক্রমণ না ছড়ায় তা নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ এরপরই স্বাস্থ্য দফতরের কর্তা ও কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মাকে সতর্ক করেন তিনি।

এমনকি মৃতদেহ যারা ক্যারি করবেন তারাও পরবেন বিশেষ পোশাক ৷ WHO-র নির্ধারিত বিধি মেনেই হবে সৎকার৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প