নয়াদিল্লি: ফের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে নয়া অভিযোগ। তৃণমূলের থেকে পরিবহণ, পর্যটন এবং সংস্কৃতি মন্ত্রক সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যানের পদ কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। এর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদের সুর চড়িয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন।

এয়ার ইন্ডিয়ার ১০০% মালিকানা বেচে দেওয়ার কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আগেই সরব হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর বুধবারের ঘটনার প্রেক্ষিতে ডেরেক ও’ব্রায়েন টুইট করেন, ‘সব প্রথা ভেঙে তৃণমূল কংগ্রেসের থেকে সংসদীয় পরিবহণ, পর্যটন এবং সংস্কৃতি মন্ত্রক সংক্রান্ত কমিটির চেয়ারম্যানের পদ কেড়ে নিল সরকার। তৃণমূল সংসদের তৃতীয় বৃহত্তম দল। ওই পদ নিজেদেরই উপহার দিল BJP। এয়ার ইন্ডিয়ার বিক্রি এবং আরও অনেক ইস্যু রয়েছে। নয়া চেয়ারম্যানের উচিত জরুরি বৈঠক ডাকা।’

এয়ার ইন্ডিয়ার মালিকানা বিক্রির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সোমবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়াম থেকে মোদী সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “এয়ার ইন্ডিয়া থেকে সব কিছুর ১০০% বিক্রি করে দিচ্ছে এরা। রেলকেও বেচে দিচ্ছে। এভাবেই একের পর এক শিল্পকে খতম করা হচ্ছে।’

এয়ার ইন্ডিয়া বিক্রির ইস্যুর পাশাপাশি সোমবারের দলীয় সভা থেকে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি ও এনপিআর নিয়ে বিজেপিকে তুলোধনা করেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সরস্বতী পুজোর পর থেকে কেন্দ্র-বিরোধিতায় আন্দোলনের তেজ আরও তীব্র হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের ছাত্র সংগঠনকে উজ্জীবিত করতে নিজের ছাত্র আন্দোলনের শুরুর দিকগুলিও ওইদিন বর্ণনা করেন মমতা।