- Advertisement -

শ্রীনগর: পাথর ছোঁড়া আটকাতে কাশ্মীরি যুবককে গাড়ির সঙ্গে বেঁধে নিয়ে যাচ্ছে সেনা। এই ছবি ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই চলছে বিতর্ক। অবশেষে সেনাবাহিনীর পাশেই দাঁড়াতে চলেছে কেন্দ্র। এমন একটি সিদ্ধান্তে সেনা অফিসার বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিয়েছে বলেই মনে করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

ভারপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলি সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করবেন সোমবারই। সেখানেই তিনি স্পষ্ট করে দেবেন সরকারের অবস্থান।

- Advertisement -

জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা ওই জিপের সঙ্গে বেঁধে নিয়ে যাওয়ার ভিডিওটি প্রকাশ করেন। যেভাবে একজনকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে বিক্ষোভকারীদের হাত এড়িয়েছে সেনা, তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সরব হয় মানবাধিকার সংগঠনগুলি ও বিরোধী রাজনৈতিক দল। কিন্তু কেন্দ্র বুঝিয়ে দিয়েছে, মরণ বাঁচন ওই অবস্থায় যেভাবে রক্তপাত না ঘটিয়ে বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিয়ে সেনা নিরাপদে সকলকে উদ্ধার করেছে, তা সমর্থন করছে তারা। এমন সিদ্ধান্তের প্রশংসাই করেছে কেন্দ্র।

৯ এপ্রিল শ্রীনগর উপনির্বাচন চলাকালীন ভোটদান কেন্দ্রের বাইরে ভিড় করে অন্তত ৯০০ বিচ্ছিন্নতাবাদী। ভেতরে তখন ১২জনের মত ভোটকর্মী, ভোটদান সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে কিনা দেখতে মোতায়েন ৯-১০জন আইটিবিপি জওয়ান, জম্মু কাশ্মীর পুলিশের কয়েকজন কনস্টেবল ও একজন বাস চালক। জানা গিয়েছে, রাস্তার পাশে বাড়ির ছাদে ছাদে পাথর ও অস্ত্রশস্ত্র হাতে ভিড় করেছিল বিক্ষোভকারীরা। সেই অবস্থায় নিরাপদে ওই জায়গা দিয়ে যাওয়ার জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয় সেনাবাহিনীকে।