নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। এরই মধ্যে মহিলাদের সাহায্য করতে তাঁদের পাশে এসে দাঁড়াল কেন্দ্রীয় সরকার। জনধন অ্যাকাউন্ট হোল্ডার এমন ২০ কোটি মহিলার অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়েছে মোদী সরকার। ব্যাঙ্কের খাতায় ৫০০ টাকা করে পাঠিয়েছে মোদী সরকার।

এই টাকা আগেই দেওয়ার কথা আগে জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। শুক্রবার থেকে সেই টাকা সকলের ব্যাঙ্কে পড়তে শুরু করেছে। সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, টাকা সবার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পৌঁছে গিয়েছে।

জানানো হয়েছে, ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট নম্বরের ভিত্তিতে এই টাকা জমার তারিখ ঠিক হয়েছে, এরফলে কিছুটা আগে পরে দেশবাসীর কাছে পৌঁছাবে টাকা। ব্যাঙ্কে ভিড় কমাতেই এহেন রাস্তা নেওয়া হয়েছে।

করোনা ভাইরাসের জন্য ইতিমধ্যে দেশ লকডাউন। আর এর মধ্যেই আর্থিক সাহায্যের কথা ঘোষণা করেছেন মোদী। এজন্য সরকার ইতিমধ্যেই ব্যাঙ্ক হোল্ডারদের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়েছে। এই টাকা আসার প্রথম কিস্তি শুরু হয়েছে এ মাসেই। আগামী আরও ২ মাস এই টাকা দেবে কেন্দ্র।

যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের ব্যাঙ্কের বইয়ের নম্বর ০ বা ১, তারা ৩ এপ্রিল অ্যাকাউন্টে টাকা পেয়েছে। যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের ব্যাঙ্কের বইয়ের নম্বর ২ বা ৩, তারা ৪ এপ্রিল অ্যাকাউন্টে টাকা পেয়েছে। যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের ব্যাঙ্কের বইয়ের নম্বর ৪ বা ৫, তারা ৭ এপ্রিল অ্যাকাউন্টে টাকা পেয়েছে। যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের ব্যাঙ্কের বইয়ের নম্বর ৬ বা ৭, তারা ৮ এপ্রিল অ্যাকাউন্টে টাকা পেয়েছে। যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের ব্যাঙ্কের বইয়ের নম্বর ৮ বা ৯, তারা ৯ এপ্রিল অ্যাকাউন্টে টাকা পেয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I