নয়াদিল্লি: পরের বছরে যদি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন অথবা নিজের পাসপোর্টকেই র‍্যিনু করাতে চান, তাহলে হয়তো হাতে পেয়ে যেতে পারেন ইলেকট্রনিক মাইক্রোপ্রসেসর চিপ সহ একটি ই-পাসপোর্ট। ইতিমধ্যেই একটি পরীক্ষামূলক প্রকল্পে, সরকার ইতিমধ্যে ২০,০০০ চিপসহ ই-পাসপোর্ট জারি করেছে।

তবে ইকোনমিক টাইমস একটি রিপোর্টে জানাচ্ছে, এবার দেশের সব নাগরিকদের জন্যই ইলেকট্রনিক মাইক্রোপ্রসেসর চিপ সহ ই-পাসপোর্টের ব্যবস্থা করছে কেন্দ্র। এজন্য একটি সংস্থা নির্বাচন করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

চিপযুক্ত ই-পাসপোর্ট পাসপোর্ট জাল হওয়ার ভয় অনেক কম এবং আন্তর্জাতিক যাত্রীদের জন্য ইমিগ্রেশন অনেক তাড়াতাড়ি হয় বলে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন – গলছে বরফ! শীঘ্রই মোদীর সঙ্গে কথা বলবেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী

রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে, ওই সংস্থা এই কাজের জন্য একটি ইউনিট গঠন করবে এবং প্রতি ঘন্টায় ১০ থেকে ২০ হাজার ই-পাসপোর্ট ইস্যু করার প্রক্রিয়ায় সামিল হবে। এই চাপ সামলাতে দিল্লি এবং চেন্নাইতে আইটি সিস্টেম স্থাপন করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

এখন পর্যন্ত কেবলমাত্র এমইএ সদর দফতরে সিপিভি বিভাগ থেকে কূটনৈতিক ও অফিসিয়াল পাসপোর্টের জন্য ই-পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়ে থাকে। আগামী বছর থেকে এই প্রক্রিয়া চালু হলে দেশের ৩৬ টি পাসপোর্ট অফিস থেকেই ই-পাসপোর্ট জারি করা যাবে।

বলা হয়েছে, এই নতুন প্রক্রিয়ায় পাসপোর্ট পেতে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ সময়ের ক্ষেত্রে বিশেষ কোনও পরিবর্তন হবে না, পুরোনো প্রক্রিয়াকে পুরোপুরি সচল রেখেই এই নতুন প্রক্রিয়া আনা হবে বলে জানা গিয়েছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও