নয়াদিল্লি: কয়েকদিন আগেই একধাক্কায় ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার। এবার কোপ পড়ল একগুচ্ছ ওয়েবসাইটে। যদিও চিনের সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই। রবিবারই একথা ঘোষণা করা হয়েছে।

‘শিখ ফর জাস্টিস’ নামে একটি খালিস্তানপন্থী গ্রুপের বিরুদ্ধে এই অ্যাকশন নেওয়া হয়েছে। মূলত আমেরিকা, ব্রিটেন ও কানাডার কিছু শিখ সম্প্রদায়ের সদস্য এই ওয়েবসাইটগুলি চালাত।

এই শিখ ফর জাস্টিস গ্রুপ ইতিমধ্যেই ভারতে বেআইনি বলে চিহ্নিত হয়েছে। Unlawful Activities (Prevention) Act এর ভিত্তিতে ওই ওয়েবসাইটগুলিকে নিষিদ্ধ করা হল। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে এই পদক্ষেপ নেওয়াআ হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘সমর্থক জোগাড় করতে ১৯৬৭-তে বিশেষ অভিযান শুরু করে এই শিখ ফর জাস্টিস গ্রুপ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে এরকম ৪০টি ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।’

এর আগে চিনের বিরুদ্ধে কার্যত ডিজিটাল স্ট্রাইক করে মোদী সরকার। চিনকে গায়ে নয়, ভাতে মারতে  ভারতে নিষিদ্ধ করা হয় চিনের সঙ্গে সম্পর্কিত ৫৯টি চিনা মোবাইল অ্যাপ।

কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচার ও বৈদ্যুতিন মন্ত্রকের তরফে এই নির্দেশিকা দেওয়া হয়। এই মর্মে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে একটি নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে।

কেন্দ্রের অভিযোগ, এই ৫৯টি অ্যাপ ভারতের ব্যবহারকারীদের তথ্য চুরি করছে। অ্যাপ ব্যবহারকারীর নাম,ঠিকানা,সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট, নানারকম গুরুত্বপূর্ন তথ্যের উপর গোপনে নজরদারি চালায় এই অ্যাপ গুলি। এমনকী, ভারতের সার্বভৌমত্ব, সৌভ্রাতৃত্বকেও চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলছে। ভারতের প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তাকেও নষ্ট করার চেষ্টা করছে এই অ্যাপগুলি।

জানা যায়, এই খালিস্তানিদের সমর্থন করে পাকিস্তানও। তাই কেন্দ্রীয় সরকার এই বিষয়ে রীতিমত উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ