নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী ফসল বিমা যোজনায় বিরাট পরিবর্তন আনল সরকার। যা কিনা চাষের ক্ষেত্রে কৃষকদের নানান অসুবিধে দূর করতে সক্ষম হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রধানমন্ত্রী ফসল বিমা যোজনা এনেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। যে সব কৃষকেরা এই প্রকল্পের ঋণের আঁওতায় রয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে এই বিমা নেওয়া অনিবার্য বলে ঘোষণা করা হয়েছে। জানানো হয়েছে, ১০০ জনের মধ্যে ৫৮ জন কৃষকই এই প্রকল্পে ঋণগ্রস্থ রয়েছেন।

কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার বলেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা ও রাজ্য এই যোজনায় একাধিক প্রশ্ন তুলেছিল, তাই এই পরিবর্তন আনা হয়েছে। এই যোজনার প্রশংসা করে তিনি বলেন, এই বিমায় ৩০ শতাংশ চাষযোগ্য জমি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী ফসল বিমা যোজনা সম্পর্কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দাবি করেন, এই যোজনার অধীনে ৬০,০০০ কোটি টাকার বিনা মঞ্জুর করা হয়েছে এবং ১৩,০০০ কোটি টাকার প্রিমিয়াম সংগ্রহ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এ বছরের বাজেট পেশের সময়েও এই যোজনার কথা উল্লেখ করেছিলেন নির্মলা সীতারমণ। প্রধানমন্ত্রী ফসল বীমা যোজনার আওতায় ৬.১১ কোটি কৃষক রয়েছে বলে জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। ১০০ টি জেলা, যেখানে জলের সমস্যা রয়েছে, সেখানে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল এবারের বাজেটে।

পাশাপাশি, সার ব্যবহার ও জল ব্যবহারের ক্ষেত্রে কৃষকদের নিয়ন্ত্রণ আনার বিষয়ে জোর দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এছাড়াও কৃষকদের জন্য ভিলেজ স্টোরেজ স্কিম আনা হবে বলেও জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী।