স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: অসুস্থ কবি শঙ্খ ঘোষকে দেখতে বুধবার হাসপাতালে গেলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী সুদেশ ধনখড়ও। এদিন কবিকে দেখতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। পরে শঙ্খ ঘোষের আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গেও কথা হয় রাজ্যপালের। পরে টুইট করে তাঁর আরোগ্য কামনা করেন তিনি।

বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন কবি শঙ্খ ঘোষ। ঘর থেকে প্রায় বেরোতেন না, কোথাও যেতে পারতেন না। সম্প্রতি ঘরের মধ্যেও চলাফেরা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল তাঁর বলে জানা যায়। ৮৭ বছরের কবি শঙ্খ ঘোষ ভুগছেন শ্বাসনালীর সমস্যায়। মঙ্গলবার সেই সমস্যা বেড়ে যায় অনেকটা। দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ তাঁকে ভরতি করা হয় মুকুন্দপুরের আমরি হাসপাতালে। ইন্টারনাল মেডিসিন স্পেশালিস্ট ডঃ সিকে মাইতির তত্ত্বাবধানে ভরতি রয়েছেন শঙ্খ ঘোষ। তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা যাচ্ছে।

পদ্মভূষণ, জ্ঞানপীঠ পুরস্কার ও সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছেন কবি। ২০১১ সালে পদ্মভূষণ পান কবি শঙ্খ ঘোষ। ২০১৬ সালে জ্ঞানপীঠ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয় তাঁকে। ১৯৭৭ সালে ‘বাবরের প্রার্থনা’র জন্য সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার পান শঙ্খ ঘোষ। ১৯৯৯ সালে কন্নড় নাটক বাংলায় ‘রক্তকল্যাণ’ অনুবাদ করে সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার পান তিনি। কলকাতা ও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনী ছিলেন তিনি।