কলকাতা: সংঘাত ভুলে সন্ধির বার্তা রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের। করোনা ও আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্যের সঙ্গে কাঁধ কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বুধবার রাজভবনে সাংবাদিক বৈঠকে এমনই জানালেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান।

বুধবার সকালেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন রাজ্যপাল। সাংবাদিক বৈঠকে সেই প্রসঙ্গ তোলেন ধনখড়। তিনি বলেন, ‘সকালেই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তাৎপর্যপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। রাজ্যের সঙ্গে কাঁধ কাধ মিলিয়ে কাজ করতে চাই। মুখ্যমন্ত্রীও এব্যাপারে পদক্ষেপের আশ্বাস দিয়েছেন।’

সংকট মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে একযোগে রাজ্যের কাজ করা উচিত বলে মনে করেন রাজ্যপাল। এব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও তাঁর কথা হয়েছে বলে জানিয়েছেন। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কেন্দ্র-রাজ্য মিলেমিশে কাজ করতে হবে। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও সেবিষয়ে কথা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যেতে চাই। রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে আলোচনা চালিয়ে যেতে চাই।’

এরই পাশাপাশি করোনা ও আমফান মোকাবিলায় রাজ্যের তহবিলে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান। তিনি বলেন, ‘কঠিন এই পরিস্থিতির মোকাবিলায় সবাই রাজ্যের তহবিলে সাহায্য করুন। এই পরিস্থিতিতে সবাইকেই সাহায্য করতে হবে। রাজ্যবাসীর জন্য ভাবা আমার কর্তব্য।’

করোনা ইস্যুতে এর আগে একাধিকবার রাজ্যের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কখনও সংক্রমণের তথ্য চেপে যাওয়ার অভিযেগা তুলেছেন কখনও আবার রেশন-পণ্য বণ্টন নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন। তা নিয়ে রাজ্যপালকে বিঁধেও একের পর এক মন্তব্য করেছেন রাজ্যের একাধিক মন্ত্রী। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও রাজ্যপালের বিরুদ্ধে তোপ দেগে উষ্মা প্রকাশ করেছেন।

সেই বিতর্ক দূরে সরিয়েই এদিন রাজ্যের সঙ্গে কাঁধ কাঁধ মিলিয়ে কাজের বার্তা দিয়ে সন্ধির পথ নিলেন রাজ্যপাল।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প