স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কফি বৈঠকে আমন্ত্রণ জানালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। কফি হাউসে রক্তদান শিবিরের এক অনুষ্ঠানে এসে একথা বললেন রাজ্যপাল। টুইট করেও সেকথা জানিয়েছে তিনি৷

রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধানের পদে বসার পর থেকেই জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে প্রশাসনের সম্পর্ক বেশ তিক্ত। তবে তার মধ্যেও কয়েকবার মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপালের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক দেখা গিয়েছে৷ কিন্তু সেটা বেশিদিন ঠেকেনি৷ কিন্তু বরাবরই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার রাস্তা খোলা রেখেছেন রাজ্যপাল৷ কয়েকদিন আগেই তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে চায়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন৷ রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে চেয়েছিলেন৷ রাজ্যপাল বলেছিলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী যখন যেখানে চাইবেন আমি বসতে পারি। প্রকাশ্যেই আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। রাজভবন, মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি, নবান্ন বা তাঁর পছন্দের যে কোনও জায়গায় যেতে পারি। যে সব বিষয়ে ওঁর বক্তব্য আছে তা নিয়ে আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান হতে পারে।’’

আবারও আলোচনার বার্তা দিলেন জগদীপ ধনকড়৷ তবে এবার চায়ের বদলে কফি৷ রাজ্যপাল বলেছেন, ‘‘কফি হাউসের এই কফি খেতে খেতে আমার এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে আলোচনা চলতেই পারে। রাজ্যের উন্নয়নের স্বার্থে আমরা অবশ্যই একসঙ্গে কাজ করব।”

এরমধ্যেই একাধিকবার রাজ্যপালকে বিজেপির মুখপাত্র বলে আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ রাজ্যের শাসক দল জগদীপ ধনকড়ের অপসারণ চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছে৷ এরপরও তাঁর কফির আমন্ত্রণে আদৌ কি সাড়া দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? কৌতুহল বাড়ছে রাজনৈতিক মহলে৷