কলকাতা: বুধবারই দিল্লি যাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করবেন রাজ্যপাল। তবে ঠিক কী উদ্দেশ্যে আচমকা ধনকড়ের এই দিল্লি-সফর, তা জানা যায়নি। উত্তরবঙ্গ সফরের ঠিক আগে রাজ্যপালের আচমকা এই দিল্লি-যাত্রা ঘিরে রাজনৈতিক মহলে চর্চা তুঙ্গে।

উৎসবের মরশুমে দিল্লি যাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। ২৮-৩০ অক্টোবর দিল্লিতে থাকবেন ধনকড়। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমনত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করবেন রাজ্যপাল। তবে ঠিক কী বিষয়ে অমিত শাহ ও জগদীপ ধনকড়ের কথা হবে তা জানা যায়নি।

জানা গিয়েছে, দিল্লি থেকে ফিরে একটানা বেশ কয়েক সপ্তাহ দার্জিলিঙে থাকার কথা রয়েছে রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধানের। ধনকড়ের পাহাড় সফরের ঠিক আগে আচমকা তাঁর এই দিল্লি-যাত্রা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জোরদার চর্চা শুরু হয়েছে।

দিন কয়েক আগেই প্রকাশ্যে এসেছেন মোর্চার বহিষ্কৃত নেতা বিমল গুরুং। কলকাতায় প্রকাশ্যে গাড়িত চেপে ঘুরতে দেখা গিয়েছে গুরুংকে। এক সময় বিজেপিকে সমর্থন করলেও এখন মোহভঙ্গ হয়েছে গুরুঙের। পদ্ম ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে যোগ দিতে চাইছেন গুরুং। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই তৃণমূলের দুই শীর্ষ নেতার সঙ্গে এব্যাপারে কথাবার্তাও হয়েছে গুরুংঙের।

এমনকী আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই মুখ্যমন্ত্রীর আসনে দেখতে চান বলে জানিয়েছেন বিমল গুরুং। এই আবহেই রাজ্যপালের পাহাড় সফর।

একটানা একমাস পাহাড় থাকবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। তবে তার ঠিক আগে আচমকা ধনকড় দিল্লি যাচ্ছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন তিনি। রাজ্যের সাংবিধানিক প্রদানের সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই সাক্ষাৎ ঘিরে কৌতূহল বাড়ছে।

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I