কলকাতা: পুলিশের বিক্ষোভ নিয়ে এবার মুখ খুললেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। টুইটে রাজ্যপাল পুলিশ প্রশাসনের অন্দরেই সরকার-বিরোধী ক্ষোভ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। পুলিশের ক্ষোভ মেটাতে রাজ্য সরকারকে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ করতেও আবেদন জানিয়েছেন রাজ্যপাল।

শুক্রবার রাতে ফের কলকাতা পুলিশের কর্মীরা বিদ্রোহ শুরু করেন। সল্টলেক পুলিশ বারাকে চলে বিক্ষোভ-ভাঙচুর। বিধাননগর কমিশনারেটের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা গেলে তাঁদের লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি করা হয়। অভিযোগ, কলকাতা পুলিশের কয়েকজন জওয়ান করোনা আক্রান্ত।

চার নম্বর ব্যাটেলিয়ানের (আর্মড ফোর্স) কয়েকজন মারন ভাইরাসে আক্রান্ত। অভিযোগ, আক্রান্তদের আত্মীয়দের পাঠানো হচ্ছে না কোয়ারেন্টাইনে। শুধু তাই নয়, চার নম্বর পুলিশ ব্যাটেলিয়ানে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করে সেখানে করোনায় আক্রান্ত পুলিশকর্মীদের রাখা হয়েছিল বলেও অভিযোগ।

প্রশাসনিক ঔদাসীন্যে অন্য পুলিশকর্মীদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি করেন বিক্ষোভকারীরা। শুক্রবার সন্ধেয় সল্টলেকে কলকাতা পুলিশের ওই ব্যাটেলিয়ানে বিল্ডিংয়ের ভিতরে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয় বলেও অভিযোগ।

রাজ্য পুলিশের অন্দরে এই বিক্ষোভ নিয়ে চিন্তিত রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। উদ্বেগ প্রকাশ করে টুইটে তিনি লেখেন, ‘আমি খুবই চিন্তিত। প্রথমে কলকাতা পুলিশ ট্রেনিং স্কুল, তারপর গরফা থানা এবং সর্বশেষ বিধাননগরে কলকাতা পুলিশের চতুর্থ ব্যাটেলিয়ানের ঘটনা আমায় স্তম্ভিত করেছে। উর্দিধারীদের এই ধরণের আচরণ খুবই চিন্তাজনক। এতে কলকাতা পুলিশের মহান ঐতিহ্যে আঘাত লাগছে।’

পুলিশের ক্ষোভ কমাতে রাজ্য সরকারকেই যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন রাজ্যপাল। তিনি টুইটে এই প্রসঙ্গে লেখেন, ‘সার্বিকভাবে ওঁদের ক্ষোভ প্রশমন করার জন্য এক্ষুনি যথাযোগ্য ন্যায্য পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন। প্রশাসনকে স্বচ্ছ ও দায়িত্ববোধসম্পন্ন রাখতে আমলাতন্ত্র এবং পুলিশকে রাজনীতিমুক্ত হয়ে কাজ করতে হবে।’

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প