নয়াদিল্লি: ধাপে ধাপে তোলা হতে পারে লকডাউন। আগামী কয়েকদিনের করোনা সংক্রমণের সার্বিক পরিস্থিতির কথা বিচার করেই ধাপে ধাপে লকডাউন তুলতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। তবে কেন্দ্রের তরফে এখনই এব্যাপারে স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি।

মারণ করোনার সংক্রমণের জেরে দেশজুড়ে এখনও ভয়াবহ পরিস্থিতি। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটছে। একইভাবে মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঘটছে মৃত্যুও।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে একটানা ২১ দিনের লকডাউন। আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত এই লকডাউনের ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই মারণ করোনার মোকাবিলা সম্ভব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সেই পরামর্শ মেনেই দেশে লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রতীকী ছবি

তবে ১৪ এপ্রিলের পর ধাপে ধাপে কেন্দ্রীয় সরকার লকডাউন তুলতে পারে বলে মনে করছে কোনও-কোনও মহল। আগামী কয়েকদিনের করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির বিচার করেই ১৪ এপ্রিলের পর সাময়িকভাবে কোনও কোনও এলাকায় লকডাউন তোলার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার।

তবে কেন্দ্রের তরফে লকডাউন তোলা নিয়ে কোনও আশ্বাস বা ইঙ্গিত এখনও পর্যন্ত মেলেনি। করোনার সংক্রমণ এড়াতে লকডাউন ছাড়া বিকল্প আরও কোনও পথ ছিল না বলে আগেই জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। একমাত্র সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখলেই মারণ এই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিস্তার পাওয়া সম্ভব। লকডাউন চালাকালীন দেশবাসীকে বাড়িতে থাকার আবেদন জানানো হচ্ছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারগুলির তরফে।

লকডাউন মেনে চলার জন্য রাজ্যগুলিকেও যথোপযুক্ত পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। গত কয়েকদিনে একাধিক রাজ্যে লকডাউন ভেঙে বেরোনর অভিযোগে শ’য়ে শ’য়ে মানুষকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।