নয়াদিল্লিঃ  খুব শীঘ্রই বেতন বৃদ্ধি হতে চলেছে সরকারি কর্মীদের। উৎসবের মরশুম শেষ হলেই এই বিষয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে পারে মোদী সরকার। সপ্তম বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী বেতন বাড়তে পারে সরকারি কর্মীদের। ইতিমধ্যে এই বিষয়ে চূড়ান্ত আলোচনা সেরে ফেলেছে অর্থমন্ত্রক। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা ঘোষণার। মনে করা হচ্ছে আগামী মাস অর্থাৎ নভেম্বরের শুরু কিংবা শেষেই এই বিষয়ে বড় কিছু ঘোষণা করতে পারে সরকার। সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলি মনে করছে, সরকারি কর্মীদের মন রাখতে বড় কিছু ঘোষণা করতে পারে সরকার।

অন্যদিকে অর্থমন্ত্রকের একটি সূত্রের খবর, বেতন বৃদ্ধির পাশাপাশি আরও বেশ কিছু সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হতে পারে। যাতে প্রায় ৫০ লক্ষেরও বেশি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মী উপকৃত হবেন বলে জানা গিয়েছে। ফলে এখন সরকার কি ঘোষণা করে সেদিকেই তাকিয়ে সরকারি কর্মীরা। সর্বভারতীয় জাতীয় এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, খুব শীঘ্রই এই বিষয়ে সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করতে পারে মোদী সরকার।

গত কয়েকদিন আগেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্যে ডিএ ঘোষণা করে মোদী সরকার। ৫ শতাংশ হারে ডিএ ঘোষণা করা হয়। জুলাই থেকে ১২ শতাংশ থেকে ১৭ শতাংশ হারে ডিএ পাবেন সরকারি কর্মীরা। বেতনের সঙ্গেই বর্ধিত হারে বেতন পাবেন। মোদী সরকারের ডিএ ঘোষণায় ৫০ লক্ষ সরকারি কর্মচারী এবং ৬৫ লক্ষ পেনশনভোগী উপকৃত হয়েছেন। মনে করা হচ্ছে, এবারের বড় ঘোষণাতে সুবিধা পাবেন পেনশনভোগীরা।

উল্লেখ্য, গত কয়েক বছর ধরে নুন্যতম বেতন সহ একাধিক দাবিতে আন্দোলন চালাচ্ছেন সরকারি কর্মীরা। লোকসভা ভোটের আগে সরকারি কর্মীদের এই দাবি মেনে নেওয়ার কথা থাকলেও তা সম্ভব হয়নি। শুধু মাত্র ডিএ ঘোষণা করেই ক্ষান্ত থাকে। কিন্তু ক্ষমতায় ফের ফিরলে সরকারি কর্মীদের নুন্যতম বেতন কাঠামো সহ একাধিক দাবি মেনে নেওয়ার কথা বলে বিজেপি।

কিন্তু বাজেট সহ সরকারের অনেকগুলি দিন কেটে গেলেও এই বিষয়ে কিছুই ঘোষণা করা হয়নি। অবশেষে নুন্যতম বেতন বৃদ্ধি সহ সপ্তম বেতন কমিশনের একাধিক দাবি মেনে নিতে পারে মোদী সরকার। আর তা মেনে নিলে ১৮ হাজার টাকা ২৬ হাজার টাকা হতে পারে সরকারি কর্মীদের নুন্যতম বেতন।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।