কোচবিহার: পড়ুয়াদের স্কুল ব্যাগের বোঝা কমাতে উদ্যোগ নিচ্ছে শিক্ষা দফতর। কোচবিহার শহরে চারটি সরকারি স্কুলে প্রি-প্রাইমারি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়াদের জন্য আলাদা লকার রুম তৈরি করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। ২০১৮ সালেই পড়ুয়াদের স্কুল ব্যাগের ওজন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই স্কুলগুলিতে সেই প্রস্তাব পৌঁছেছে। স্কুলে প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রীদের জন্যই পৃথক পৃথক লকারের ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানা গিয়েছে।

সদর গভর্নমেন্ট হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মলয় দে জানান, “এই সিদ্ধান্তের ফলে উপকৃত হবে পড়ুয়ারা।” কোচবিহারের জেনকিন্স, সুনীতি অ্যাকাডেমি, ইন্দিরা দেবী ও সদর গভর্নমেন্ট হাই স্কুলে এই লকার তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কোচবিহারের এক স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জানান, “ইতিমধ্যেই লকার তৈরি করার প্রস্তাব এসে পৌঁছেছে। শীঘ্রই সেই কাজ শুরু করা হবে।”

পড়ুন: তৃণমূলের ভাঙন রুখতে প্রতিবাদ মিছিলে অরূপ বিশ্বাস

শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, প্রি-প্রাইমারি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের জন্য এই লকার রুম তৈরি করা হবে। প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির পড়ুয়াদের অধিকাংশ বই ও খাতা সেই লকারে রাখা হবে। স্কুলে আসার পর ছাত্র-ছাত্রীরা সেগুলি করবে। বাড়ি ফিরে যাওয়ার সময় পুনরায় সেগুলি লকারে রেখে দিয়ে যাবে। শুধু তাই নয় অন্যান্য শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের ক্ষেত্রেও নির্দিষ্ট কিছু বই ছাড়া বাকি সব বই-খাতা সেই লকারে রেখে যেতে হবে। লকারের দুটি করে চাবি থাকবে। একটি চাবি ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে ও অপরটি স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে। স্কুলে আসার পর পড়ুয়ারা নিজের লকার থেকে বই ও খাতা বের করে ক্লাসে ঢুকবে।

পিঠে ভারী ব্যাগের বোঝায় চাপ বাড়ছে পড়ুয়াদের। স্কুলগুলিতে পঠন-পাঠনের মান উন্নয়নের জন্য বই-খাতার সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ভারী ব্যাগ পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যের পক্ষেও ক্ষতিকর, তা মানছেন চিকিৎসকরা। শিক্ষা দফতরের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলেই।