নয়াদিল্লি: গৌতম গম্ভীরকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে। ক্রিকেটার থেকে সদ্য রাজনীতির ময়দানে সক্রিয় হয়ে ওঠা বিজেপির এমএলএ এমনই অভিযোগ দায়ের করেছেন দিল্লি পুলিশের কাছে।

শনিবার দিল্লি পুলিশকে অভিযোগ দায়ের করে জানিয়েছেন যে তিনি ও তাঁর পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ফোন আসছে। একটি আন্তর্জাতিক নম্বর থেকে এই হুমকি ফোনগুলি এসেছে বলে তিনি জানিয়েছেন পুলিশকে। তিনি দিল্লি পুলিশকে অভিযোগ দায়ের করে তাঁর পরিবারের জন্য বাড়তি সুরক্ষা চেয়ে পাঠিয়েছেন। ২০ ডিসেম্বর গম্ভীর একটি চিঠি লিখেছেন শাহদারার ডেপুটি পুলিশ কমিশনারকে।

চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘একটি আন্তর্জাতিক নম্বর থেকে আমার পরিবারকে প্রত্যেককে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ফোন এসেছে।’ ওই নম্বরটিও চিঠিতে জানিয়েছেন তিনি। +৭ (৪০০) ০৪৩ এই নম্বর থেকেই হুমকি এসেছিল বলে জানিয়েছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেট দলের ব্যাটসম্যান। গম্ভীর তাঁর এক আপ্তসহায়কের মাধ্যমে ঘটনাটি পুলিশকে জানাতে বলেন।

ওই চিঠিতে গম্ভীর এও লিখেছেন, ‘তিনি এবং তাঁর পরিবার এই ফোনের জেরে যথেষ্ট শঙ্কার মধ্যে রয়েছেন।’ তাই তাঁর পরিবারকে বাড়তি সুরক্ষা দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিষয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন গম্ভীর। সম্প্রতি কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়া নিয়ে পাক ক্রিকেটার শাহিদ আফ্রিদির সঙ্গে টুইটারে বাঁক যুদ্ধে জড়িয়েছিলেন তিনি।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ রাজ্যসভায় সংবিধানের ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা খারিজ করার প্রস্তাব পেশ করার কিছু পরেই প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার শাহিদ আফ্রিদি টুইট করে বলেছিলেন যে ‘রাষ্ট্রপুঞ্জ কেন ঘুমিয়ে আছে? কোনও রকম প্ররোচনা ছাড়াই কাশ্মীরে হিংসা ছড়ানো হচ্ছে, মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে। কাশ্মীরবাসীরও স্বাধীনতার অধিকার আছে।’

এরই উত্তরে গৌতম গম্ভীর পালটা টুইট করেন এই বলে যে ‘আফ্রিদি একদমই ঠিক বলেছেন। কোনও রকম প্ররোচনা ছাড়া হিংসা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন অবশ্যই হচ্ছে, কিন্তু তা পাক-অধিকৃত কাশ্মীরে। চিন্তা করো না, সেই সমস্যাও আমরা মেটাব।’

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।