নয়াদিল্লি : আয়কর জমা দেওয়ার পরেও অনেক সময়েই নোটিশ পাঠায় আয়কর দফতর। ফলে তৈরি হয় জটিলতা, চিন্তা। কিন্তু জানেন কী, অনেক সময়েই আয়কর দফতরের নোটিশ আসতে পারে ছোটখাট অনেক কারণেই। তাই দুশ্চিন্তা না করে এই কাজগুলি করে ফেললেই আপনি চিন্তামুক্ত থাকতে পারেন।

সময়মতো আয়কর জমা না দিলে নোটিশ আসতে পারে আপনার বাড়িতে। এছাড়াও হতে পারে তথ্যের ভুল, আয় সঠিকভাবে না দেখানোর ভুল বা অনেক সময় ক্ষতি বেশি পরিমাণে দেখানো হলেও নোটিশ ধরাতে পারে আয়কর দফতর।

একজন করদাতা কী করবেন ? একজন করদাতা অবশ্যই নিজের সব তথ্য জমা দেওয়ার আগে দেখে নেবেন, তা সঠিক কিনা। ইনকাম ট্যাক্সের ওয়েবসাইটে গিয়ে রিপ্লাইও করতে হবে। সময় মতো আয়কর জমা দেওয়াই বাঞ্ছনীয়। সাধারণত নোটিশ পেলে আয়কর দফতর ১৫দিন পর্যন্ত সময় দেয়।

এই সময়ের মধ্যে নোটিশের উত্তর দিন। তা না হলে আপনার রিটার্ন বাতিল হতে পারে। এছাড়াও একজন করদাতাকে নোটিশ পাঠানো হতে পারে যদি কোনও ক্লেম করা হয়। টিডিএস ক্লেম করার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম মানতে হয়। টিডিএসের পরিমাণ ফর্ম ২৬ এ এসের মধ্যে দেওয়া তথ্যের সঙ্গে মিলতে হবে।

তবে কিছু ক্ষেত্রে যদি তা না পেলে, তার সঠিক কারণ দেখান। যদি কিছু তথ্য পরিবর্তন করার থাকে, তবে দ্রুত তা করে তার সঙ্গে সম্পর্কিত সব নথি জমা দিন। এতে সোর্স ক্লিয়ার থাকবে। তথ্যে কোনও রকম অসঙ্গতি দেখলে আয়কর দফতর তার কারণ জানতে চেয়ে নোটিশ পাঠাতে পারে।

এর জন্য আপনাকে ইনকাম ট্যাক্স পোর্টালে লগ ইন করে কারণ জানাতে হবে। সঙ্গে তথ্য ও প্রমাণ দিতে হবে। নিজের আয় সম্পর্কে যে তথ্য দিয়েছেন, তা যদি বিশ্বাসযোগ্য না হয়, তবে নোটিশ আসতে পারে।

সেক্ষেত্রে ইনকাম ট্যাক্স ব্যাংক, মিউাচুয়াল ফান্ড সংস্থার থেকে আপনার তথ্য ভেরিফাই করতে পারে। তাই ট্যাক্স জমা দেওয়ার আগে নিজেই সব তথ্য যাচাই করুন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I