কলকাতা:  একেই বলে কপালের নাম গোপাল! যদিও এমনটা মেনে নিচ্ছেন না শিক্ষামহল। সকলের মতে, এই ঘটনা আসলে যোগ্যতার স্বীকৃতি। অধ্যাপক গোপাল রায়ের বাড়ি শান্তিনিকেতনে। এবার তিনি কিছু দিনের জন্য বাংলা পড়াতে যাচ্ছেন জাপান বিখ্যাত টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই খবরে স্বাভাবিক ভাবেই খুশি গোটা বাংলার শিক্ষামহল।

এই ঘটনা শুধু শান্তিনিকেতনের নয়, আপামর বীরভূম বাসীর কাছেই গর্বের ব্যাপার। আগামী পয়লা অক্টোবর থেকে তিনি পড়ানোর কাজে যোগ দেবেন টোকিও ইউনিভার্সিটিতে। তাঁর অফিসিয়াল পদের নাম বেঙ্গলি ভিজিটিং প্রফেসর। টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে তাঁর পড়ানোর বিষয়ে যাবতীয় কথাবার্তা ফাইনাল হয়েছে। জানা গিয়েছে, দু’বছরের জন্য তিনি জাপানে যাচ্ছেন। গোপাল বাবু পড়াশোনা করেছেন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে। এখন তিনি পুরুলিয়ার সিধু কানহু বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ান। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দীপক কর এই সংবাদে আপ্লুত।

ইউনিভার্সিটির নিয়ম অনুযায়ী তিনি লি এন নিয়ে দু’বছরের জন্য জাপানে যেতে পারবেন। সেখান থেকে ফিরে এসে আবার অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেবেন সিধু কানহু বিশ্ববিদ্যালয়ে। যদিও সমস্তটাই নির্ভর করবে পুরুলিয়ার ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর। এর আগে বাংলা থেকে অধ্যাপক পবিত্র সরকার টোকিও ইউনিভার্সিটিতে পড়াতে গিয়েছেন। রবীন্দ্রনাথের ‘জাপানযাত্রীর ডায়রি’ সকলেরই পড়া। জাপান দেশটির প্রসঙ্গে থেকে থেকে ফিরে এসেছে রবীন্দ্রসাহিত্যে। এবার সেই জাপানে বাংলা পড়াবেন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যলয়ের বাংলা বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র।

 

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, গোপার রায়ের মধ্যে দিয়ে দুই দেশের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সেতু রচনা হবে। গোপাল বাবু এর আগে অমেরিকার শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয় এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা পড়িয়ে এসেছেন। এবার তিনি যেতে চলেছেন টোকিয়ো বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত জাপানে থাকবেন তিনি। তাঁর দিকে তাকিয়ে আপামর বাঙালি।