স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: মহামেডানের ফুটবলারের বাড়িতে বোমাবাজি ও দুষ্কৃতী হামলা৷ কামারহাটির এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়৷ ফুটবলার প্রিয়াঙ্ককুমার সিং৷ মহামেডান স্পোর্টিংয়ের প্রথম একাদশের গোলকিপার তিনি৷ শনিবার গভীর রাতে তাঁর বাড়িতেই চলে হামলা৷

ঘটনার সময় বাড়িতেই ছিলেন প্রিয়াঙ্ক৷ পরিবারের অন্যান্য সদস্যর মত ঘুমিয়েছিলেন তিনিও৷ কামারহাটি পুরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের ফিডার রোড ডোবাপাড়ায় তাঁর বাড়ি৷ স্থানীয়সূত্রে খবর, শনিবার রাত দেড়টা নাগাদ একটি লাল চার চাকার গাড়ি প্রিয়াঙ্কর বাড়ির সামনে দাঁড়ায়৷

আরও পড়ুন: বিশ্বাস করুন প্রধানমন্ত্রীর এই নাচের ভিডিও দেখলে আশ্চর্য হবেনই!

স্থানীয় দু’একজনকে প্রিয়াঙ্কর বাড়ির ঠিকানাও জিজ্ঞাসা করে৷ প্রিয়াঙ্ককে সকলেই চেনেন৷ দেখিয়েও দেন তাঁর বাড়ি৷ এরপরই ওই গাড়ি থেকে চার দুষ্কৃতী বেরিয়ে ওই ফুটবলারের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়ে৷ বোমার শব্দ শুনে ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন প্রিয়াঙ্ক ও তাঁর পরিবারের লোকজন৷ মূহূর্তে এলাকা ছেড়ে পালায় গাড়িটি৷

সঙ্গে সঙ্গে বেলঘরিয়া থানায় ফোন করে বিষয়টি জানান প্রিয়াঙ্ক৷ ভোরের দিকে পুলিশ এসে তদন্ত শুরু করে৷ সদ্য অনুশীলনে গিয়ে হাতে চোট পাওয়ায় বাড়িতে বিশ্রামে আছেন এই মহামেডান ফুটবলার৷ দলের প্রথম একাদশের নির্ভরযোগ্য গোলকিপার এবং ওই দলের সহ-অধিনায়ক তিনি৷

প্রিয়াঙ্ক বলেন, ‘‘স্থানীয় আড়িয়াদহ তালতলা স্পোর্টিংক্লাবের অধিনায়ক আমি৷ ছোটবেলা থেকেই ফুটবল খেলছি৷ উত্তর ২৪ পরগনা জেলাস্তরের ফুটবল প্রতিযোগিতায় এবার তালতলা স্পোর্টিং ক্লাব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে৷ এই প্রতিযোগিতা নিয়ে অনেকের আপত্তি ছিল৷ একাধিকবার তারা আমার ক্লাবের কর্মকর্তাদের শাসিয়েছে৷ এমনকী তালতলা স্পোর্টিং ক্লাবেও সম্প্রতি দুষ্কৃতী হামলার ঘটনা ঘটেছে৷ এবার আমার বাড়িতে ঘটল৷’’

আরও পড়ুন: ‘বিধায়ক হওয়ার আগে পর্যন্তও কোনও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ছিল না আমার’

এই ঘটনায় অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবি করে প্রিয়াঙ্ক বলেন, ‘‘আমার মা খুব অসুস্থ৷ এই বোমাবাজির ঘটনার পর থেকেই পরিবারের সদস্যরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন৷ যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত৷ আশা করছি পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নেবে৷’’

বেলঘরিয়া থানার পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি৷ স্থানীয় বাসিন্দারা এই ঘটনায় পুলিশের কড়া হস্তক্ষেপ দাবি করেছে৷ পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তদের খোঁজ চলছে দুষ্কৃতীরা শীঘ্রই গ্রেফতার হবে৷